শিক্ষাঙ্গন

বিতর্কিত কর্মকর্তাকে জবিতে উচ্চপদে নিয়োগের অভিযোগ

 ক্যাম্পাস প্রতিবেদক, ঢাকা, ৪ জানুয়ারি : দেশের চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যেই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিতর্কিত এক কর্মকর্তাকে উচ্চপদে নিয়োগ দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, ২০০৯ সালে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্বাহী প্রকৗশলীর পদে সুকুমার চন্দ্র সাহা অস্থায়ী হিসেবে নিয়োগ পান। তবে বিভিন্ন প্রকল্পের হিসাব গড়মিলের অভিযোগে আগের কর্মস্থল কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় তাকে ছাড়পত্র দেয়নি।জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একাধিকবার নোটিশ দিলেও ছাড়পত্র আনতে ব্যর্থ হন তিনি। পরে ছাড়পত্র ছাড়াই ২০১১ সালের ১২ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় তাকে স্থায়ী নিয়োগ দেওয়া হয়। সুকুমারের পক্ষে এক মন্ত্রীর তদবিরের কারণেই তাকে উপপ্রধান প্রকৌশলী পদে নিয়োগ দিতে যাচ্ছে প্রশাসন। সে লক্ষ্যে উপপ্রধান প্রকৌশলী পদে নিয়োগের জন্য গত বছরের আগস্ট মাসে জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞপ্তি দেয় প্রশাসন। এতে প্রকৌশল কাজে ৯ বছরের অভিজ্ঞতা চাওয়া হয়। অভ্যন্তরীণ প্রার্থীদের জন্য অভিজ্ঞতার শর্তও শিথিল করা হয়েছে।তবে সুকুমার চন্দ্র সাহার দুই কর্মস্থলের কাজের অভিজ্ঞতা (কুমিল্লা ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) মিলিয়ে শর্ত পূরণে আরও চার মাস বাকি রয়েছে। দেশে চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার পরও আজ শনিবার জাতীয় নির্বাচনের আগের দিন তড়িঘড়ি করে নিয়োগ বোর্ড বসানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ীই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। সুকুমার চন্দ্র সাহা বলেন, পদোন্নতির সব যোগ্যতা তার রয়েছে। নিময় অনুযায়ী আরও আগেই তার পদোন্নতি হওয়ার কথা ছিল।