কৃষি

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে সরিষার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

জেলা প্রতিবেদক
যশোর, ৩১ ডিসেম্বর: চলতি মৌসুমে (২০১৩-১৪) দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০ জেলায় সরিষার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

এ অঞ্চলে চলতি মৌসুমে ৬৭ হাজার ৪৪০ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। আর চাষ হয়েছে ৬৩ হাজার ৮শ’ ৩০ হেক্টর জমিতে।

গত বছরের চেয়ে এবার ১ হাজার ৬শ’ ৬৮ হেক্টর জমিতে সরিষার বেশি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৬৫ হাজার ৭ শ’ ৭২ হেক্টর জমিতে। আবাদ হয়েছিল ৬৭ হাজার ১ শ ৫০ হেক্টর জমিতে। উৎপাদন হয়েছিল ৮৪ হাজার ৬ শ’ ১৮ মেট্রিক টন।

কৃষক ও কৃষি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এ বছর সরিষার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।  ভোজ্য হিসেবে সরিষা  তেলের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় কৃষাণ-কৃষাণীরা প্রতিবছর এ শস্যের চাষ  বেশি বেশি জমিতে করছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, খুলনা অঞ্চলের ১০ জেলা-যশোর, নড়াইল, ঝিনাইদহ, মাগুরা, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, সাতক্ষীরা ও খুলনা জেলার বিস্তৃীর্ণ মাঠজুড়ে সরিষার ফুল দৃষ্টি কাড়ছে সবার। মৌঁমাছি মধু সংগ্রহ করছে সরিষা ফুল থেকে। বাজারে সরিষা মধুর চাহিদা ও দাম বেশি।

কৃষকরা জানান, জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে সরিষা কর্তন শুরু হবে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবং কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সময়মতো উন্নতমানের বীজ, পর্যাপ্ত সার ও কীটনাশক চাষীদের মাঝে সরবরাহ করায় সরিষার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে কৃষি সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

যশোর আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, চলতি মৌসুমে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০ জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি সরিষার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় যশোর জেলায়। এ জেলায় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ হাজার ৫ শ’ ৫৬ হেক্টর জমিতে। আর আবাদ হয়েছে ১৩ হাজার ৩ শ’ ৫৫ হেক্টর জমিতে।

এছাড়া নড়াইল জেলায় ৫ হাজার ৬৬৪ হেক্টরে ৬ হাজার ৭৯৭ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৫ হাজার ৯ শ’ ৮০ হেক্টর জমিতে, মাগুরা জেলায় ১২ হাজার ৯২ হেক্টরে ১৪ হাজার ৫১০ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ১১ হাজার ৫শ’ ৯০ হেক্টর জমিতে, ঝিনাইদহ জেলায় ১০ হাজার ১৩  হেক্টরে ১২ হাজার ১৬ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৯ হাজার ৯ শ’ ৭৫ হেক্টর জমিতে ও কুষ্টিয়া জেলায় ৫ হাজার ৪০৮ হেক্টরে ৬ হাজার ৪৯০  মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৪ হাজার ৫শ’ ১০ হেক্টর জমিতে।

মেহেরপুর জেলায় ৬ হাজার ২১৭ হেক্টরে ৭ হাজার ৪৬০ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৬ হাজার ১শ’ ৫০ হেক্টর জমিতে, চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৩ হাজার ১৮৪ হেক্টরে ৩ হাজার ৮২১ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৩ হাজার ৯শ’ ২৫ হেক্টর জমিতে, সাতক্ষীরা জেলায় ৭ হাজার ১৯৬ হেক্টরে ৮ হাজার ৬৩৫ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৭ হাজার ২শ’ ৩০ হেক্টর জমিতে, খুলনা জেলায় ৪১২ হেক্টরে ৪৯৪ মেট্রিক টন, আবাদ হয়েছে ৩শ’ ৭০ হেক্টর জমিতে এবং বাগেরহাট জেলায় সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৬৯৮ হেক্টর, আবাদ হয়েছে ৭শ’ ৪৫ হেক্টর জমিতে।