অপরাধ খুলনা

দিঘলিয়ায় পুলিশ পরিচয়ে ডেকে শ্বাসরোধ করে একজনকে হত্যা

এম এইচ হোসেন, খুলনা থেকে :  খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুরের মধ্যপাড়ায় মঙ্গলবার প্রথম প্রহারে কেসমত (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ পরিচয়ে একদল লোক রাতে তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর বাড়ির অদূরে তার শ্বাসরোধ করা লাশ পাওয়া যায়।
পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রাত ১২টার দিকে একদল লোক তার বাড়িতে যায় এবং নিজেদের পুলিশ পরিচয় দিয়ে কেসমতকে বাইরে ডাকে। এ সময় তারা রাতে দরজা খুলতে রাজি হয়নি। এক পর্যায়ে স্থানীয় চৌকিদার মকবুলের কথা শুনতে পায়। এতে তারা ভরসা পায় এবং কেসমত বাইরে বের হয়। এরপর লোকগুলো কেসমতকে নিয়ে চলে যায়। পরে পরিবারের লোকজন আতঙ্কিত অবস্থায় বিভিন্ন মাতব্বরের সাথে যোগাযোগ করে এবং কেসমতকে পুলিশের কাছ থেকে ছাড়ানোর জন্য তৎপর হয়। এমন অবস্থার মধ্যে রাতে বাড়ির অদুরে কেসমতকে অচেতন অবস্থায় পাওয়ায়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। তাকে শ্বাসরোধ করা হয়েছে বলে পুলিশ ধারনা করছে।
জানা গেছে, কেসমত দীর্ঘদিন ধরে ভারতের বোম্বেতে বসবাস করছে। সে প্রায়ই দিঘলিয়ায় আসা যাওয়া করতো। ব্যবসায় সংক্রান্ত কোন বিষয় দিয়ে সৃষ্ট জটিলতা থেকে এ হত্যাকান্ড হতে পারে বলে স্থানীয়রা মনে করছে। তবে পুলিশ ধারনা করছে এ ঘটনার সাথে মেয়েলি কোন বিষয় জড়িত থাকার কথা। এ পর্যন্ত দিঘলিয়া  উপজেলা থেকে পাচার হওয়া মেয়েদের অধিকাংশই এই বারাকপুর ও গাজীরহাট এলাকার। বিভিন্ন সময় পাচারের পর ভারতের বোম্বে থেকে পালিয়ে আসা মেয়েরাও এই বারাকপুর এলাকার।