জাতীয় প্রধান খবর

আসছে সামরিক বিমান, ব্যালট যাচ্ছে আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
ঢাকা, ২৭ ডিসেম্বর: আসন্ন দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সব প্রস্তুতিই নিয়ে রাখছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসির চাহিদা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা। এবার ১ জানুয়ারি থেকে ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত সাত দিনের জন্য সামরিক বিমান ও হেলিকপ্টার চেয়ে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগকে চিঠি দিয়েছে ইসি। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সহকারী সচিব ফরহাদ হোসেন স্বাক্ষরিত এ চিঠি স্বশস্ত্র বাহিনী বরাবর পাঠানো হয়।

নির্বাচন কমিশন সূত্র জানা গেছে, ১ থেকে ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত নির্বাচনী নিরাপত্তা ও প্রয়োজনে সামরিক বিমান এবং হেলিকপ্টার ব্যবহৃত হবে।

সূত্র আরও জানায়, চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে দেশের সব জায়গায় ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের আসা-যাওয়া, ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্স পাঠাতে সমস্যা হতে পারে। তাই প্রয়োজনীয় সংখ্যক সামরিক বিমান ও হেলিকপ্টার প্রয়োজন হতে পারে বলে চিঠিতে বিষয়টি উল্লেখ রয়েছে।

নির্বাচনী কার্যপত্রে বলা হয়েছে, পার্বত্য, দুর্গম, দ্বীপ অঞ্চল ও প্রত্যন্ত এলাকার ভোটকেন্দ্র সমুহের নির্বচনী কর্মকর্তাদের গমনের জন্য এবং নির্বাচনী দ্রব্যদি পাঠাতে হেলিকপ্টার প্রয়োজন হবে। এ লক্ষ্যে নির্বাচনের পূর্ব থেকে নির্বাচনের পরদিন পর্যন্ত হেলিকপ্টার সার্ভিস দিতে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

এছাড়া, পার্বত্য তিনটি জেলার ৩৩টি ভোট কেন্দ্র দুর্গম পাহাড়ে অবস্থিত হওয়ায় স্বাভাবিক নিয়মে সেখানে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা এবং সরঞ্জাম পাঠানো সম্ভব নয়। এজন্যও হেলিকপ্টার প্রয়োজন।

পাশাপাশি, নির্বাচন কমিশেনর সহকারি সচিব মো. আশফাকুর রহমান জানিয়েছেন, নির্বাচনের সর্বশেষ প্রস্তুতি হিসেবে ব্যালট পেপার মুদ্রণের কাজ শেষ হয়েছে। আজ শুক্রবার এ ব্যালট সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে পাঠানো হবে। ১৪৬ আসনের জন্য ব্যালট পেপার মুদ্রণ করা হয়েছে চার কোটি ৩৬ লাখ ৫৫ হাজার ৯৩৫টি। ৫৯ জেলায় এসব ব্যালট পেপার পাঠানো হবে বিজিবি ও র‌্যাবের সহায়তায়।