মৌলভীবাজার সারাদেশ সিলেট

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে পাহাড়ের কোলে পাঁচতারা ‘গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এন্ড গলফ’ এর রাজকীয় উদ্বোধন

Moulvibazar 5 star hotel grand sultan king openingএম শাহজাহান আহমদ,মৌলভীবাজার:
রাজকীয় আয়োজনের মধ্য দিয়ে বুধবার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে চা-বাগান, ঝর্ণা আর বনভূমির আদরে লালিত নয়নাভিরাম শহর শ্রীমঙ্গলের ১৩.৬ একর জায়গা নিয়ে সম্পূর্ণ দেশী বিনিয়োগে নির্মিত বাংলাদেশের প্রথম পাঁচ তারকা মানের ‘গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এন্ড গলফ’। ‘গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এন্ড বলরুম রোশনি মহলে সন্ধ্যা ৭টায় এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন এক্সকারশন এন্ড রিসোটর্স বাংলাদেশ লিঃ (‘গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এন্ড গলফ’-এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান)-এর চেয়ারম্যান খাজা টিপু সুলতান। অনুষ্টানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এক্সকারশন এন্ড রিসোটর্স বাংলাদেশ লিঃ এর এম,ডি সোহেল হোসেন ইবনে বতুতা, টেকনিক্যাল ডিরেক্টর বিকেএস ইনান, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টার ফারুক রহমান, গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এন্ড গলফের জি,এম টনি খানসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমূখ।
উদ্বোধনী অনুষ্টানে খাজা টিপু সুলতান বলেন, এটি কেবল কোম্পানীর নয় বরং হয়ে উঠেছে এদেশের সকল মানুষের সম্পদ।“বিশ্ব মানের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে গড়ে উঠা এ অবকাশ কেন্দ্র আমাদের তথা দেশের গৌরব। এই এলাকায় এ রকম একটি অবকাসের চাহিদা ছিল র্দীঘদিনের আজ সেই চাহিদাটি পূরন হলো। আবেগঘন কন্ঠে তিনি আরো বলেন, মহমান্য প্রেনিডেন্টের হাতে পাঁচ তারকা মানের গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এন্ড গলফের উদ্ভোধনী আয়োজন সম্পন্ন হবার কথা থাকলেও দেশের বিরাজমান রানৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে তা সম্ভব হয়নি।  দুই দিনব্যাপী চলবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এ রিসোর্টের উদ্বোধনী আয়োজন। এ দিনটি একই সাথে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব হওয়ায় বড় দিন উদযাপন করা হয়। আলোক সজ্জিত ক্রিসমাস ট্রি আর সান্তাক্লোজের উপহার ছাড়াও শিশুদের জন্য রকমারি খেলনা আর বিনোদন শেষে উপহার বিতরন করা হয়।Moulvibazar 5 star hotel grand sultan king opening
আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে গ্রান্ড ডিনার উপভোগ করেন উপস্থিত সবাই। এরপর সুরের মূর্চ্ছনা তুলে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড সোলস।
এছাড়া, দ্বিতীয় দিনের সন্ধ্যায় সঙ্গীত পরিবেশন করবেন হায়দার হোসেন। উল্লেখ্য, দুই দিনের এ উদ্বোধনী আয়োজনে কনসার্ট এবং ডিনারে আমন্ত্রিত অতিথি ছাড়াও অংশগ্রহণের সুযোগ রয়েছে সর্বসাধারণের। আর এ দু’দিনের স্পেশাল প্যাকেজে প্রতিজনের জন্য রয়েছে মাত্র ৪ হাজার টাকায় গ্রান্ড ডিনারের সুযোগ। বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পকে আন্তর্জাতিক মর্যাদার আসনে তুলে ধরতেই গ্রান্ড সুলতানের এই অভিযাত্রা। এর উদ্যোক্তারা দাবি করেন, গ্রান্ড সুলতান শ্রীমঙ্গল তথা বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক প্রেক্ষাপটকে বদলে দেবে। রিসোর্টের বিভিন্ন সুবিধাদির মধ্যে রয়েছে আধুনিক সকল সুবিধাসহ ২,০০,০০০ বর্গফুট জায়গার উপর গড়ে তোলা নয় তলা ভবনের ১৪৫টি কক্ষ, এর মধ্যে ৪৫টি কিং সাইজ আর ৪৩টি কুইন সাইজ কক্ষ। এখানে একটি অসাধারণ নাইন হোল গলফ কোর্স ছাড়াও রয়েছে লন টেনিস, ব্যাডবিন্টন, বিলিয়ার্ড ও টেবিল টেনিস খেলার আয়োজন। এছাড়া শিশুদের জন্য আছে আলাদা খেলার জোন। রিসোর্টটিতে অ্যামিবা আকৃতির বিশাল সুইমিংপুলসহ সুনিয়ন্ত্রিত তাপমাত্রার সর্বমোট ৩টি সুইমিংপুল আছে। রিসোর্টে রয়েছে থ্রি-ডি থিয়েটার, যেখানে ৪৪ জন এক সঙ্গে বসে এই থিয়েটারে সিনেমা উপভোগ করতে পারবে। দেশের কোন আনন্দ নিবাসে এই প্রথমবারের মত সংযোজিত হয়েছে সুবিশাল পাঠাগার।
রিসোর্টে রয়েছে, ১২০০ জনের সংকুলান সমৃদ্ধ ‘রোশনিমহল’ ও ৭৫০ জনের স্থান সংকুলান সুবিধাসমৃদ্ধ ‘নওমি মঞ্জিল’ নামের ব্যাংকোয়েট হল। এছাড়া রয়েছে ফোয়ারা ডাইন, শাহী ডাইন ও অরণ্য বিলাস নামের ৩৩০ আসন বিশিষ্ট পাঁচ তারকা মানের রেস্টুরেন্ট। বিশেষ আকর্ষণ আছে গলফ পাহাড়িকা, পুল ডেক ও ক্যাফে মঙ্গল নামে তিনটি ক্যাফে। কর্পোরেট অতিথিদের জন্য আছে ভিন্ন মাত্রার সুবিধা। রিসোর্টে তিনটি বিশালাকৃতির দৃষ্টিনন্দন রুচিশীল মিটিং কক্ষ ছাড়াও অত্যাধুনিক সুসজ্জিত জিমনেসিয়ামসহ রয়েছে স্পা, সনা, জ্যাকুজি ও ম্যাসেজ পার্লারের ব্যবস্থা।