অপরাধ বরিশাল ভোলা

ভোলার তজুমদ্দিনে জলদস্যুদের মহড়া ; ককটেলসহ আটক-১

ভোলা প্রতিনিধি :  ভোলার তজুমদ্দিনের মেঘনায় জলদস্যুবাহিনীরা আবারো সক্রিয়। তারা রাতের আধারে লোকালয়ে এসে সশস্ত্র মহড়া দিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। দীর্ঘদিন ধরে একটি মহলের ছত্রছায়ায় এসকল জলদস্যুরা অপহরণ, ডাকাতি ও চাঁদাবাজি চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। এর প্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার বিকেলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে চাপড়ী এলাকা থেকে ৬ টি ককটেলসহ নাজিম নামের এক  ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে। সুত্রে জানা যায়, বেশকিছু দিন যাবৎ গভীর রাতে উপজেলার বালিয়া কান্দি, নতুন হাট, ঘোসের হাওলা, ইন্দ্রনারায়নপুর ও চাপড়ী এলাকায় কয়েকটি গ্রুপের সশস্ত্র জলদস্যুরা শক্তিশালী ককটেল ও আতশবাজি ফাটিয়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে। এছাড়াও অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বিভিন্ন বাসা বাড়িতে রাত যাপন ও বিভিন্ন মালামাল হরন করে। গত ১৯ ও ২০ ডিসেম্বর রাতে ইউসুফ বাহিনীর ডাকাতরা বালিয়া কান্দি, ঘোসের হাওলা ও নতুন হাট এলাকায় এসে বিকট শব্দে রকেট লেঞ্চার ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পুরা
এলাকায় আতঙ্কিত করে তোলে। চাদপুর ইউপি’র ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য তৈয়বুর রহমান মাষ্টার জানান, এসময় গভীর রাতে তার বাসার কাছে বিকট শব্দ ও পুরো এলাকা আলেকিত হয়ে কিছু বিস্ফোরণের অনুমান করে থানায় সংবাদ দেই। পরে সকালে পুলিশ এসে আলামত সংগ্রহ করে।
এদিকে, ইউসুফ বাহিনীর সক্রিয় ডাকাত রুবেল, তৈয়ব, নাজিম, কানা সেলিম, ফিরোজ, হাফেজ, আলী আজগর, আলমগীর ও মনিরসহ অন্তত ২০/২২ জনের একটি দল এসব নাশকতা সৃষ্টি করে চলছে। এদের সকলের বাড়ি উপজেলার চাঁদপুর ও সোনাপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায়।
অপরদিকে, কিছুদিন পুর্বে তাদের দলের ৩ সদস্য মনির, ফিরোজ ও নয়ন পুলিশের হাতে আটক হলে চাঁদপুর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের এক সাবেক ও ৫ নং ওয়ার্ডের মেম্বার তাদেরকে থানা থেকে চাড়িয়ে নেয়। ওই ইউপি সদস্যদের বিরুদ্ধে মেঘনায় প্রভাব বিস্তারসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে।আটককৃত ডাকাত নাজিমের কাছ থেকে জানা যায়, স্থানীয় একটি মহলের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে তারা বিভিন্ন অপারেশন চালায়। ওই মহলটির মাধ্যমে আইনগত সকল সুবিধা নেয়। এজন্য তাদেরকে ডাকাতি করা অর্থ হতে একটা অংশ ও নদীতে ওই মহলের ব্যবসা সেল্টার দেয়া হতো বলে সে দাবী করে। এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুর রহমান জানান, গত কয়েক দিনের ঘটনার সুত্র ধরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে চাপড়ী এলাকা থেকে ৬ টি ককটেলসহ ইউসুফ বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড নাজিম ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে
তজুমদ্দিন, বোরহানউদ্দিন ও লালমোহন থানায় ৩ টি হত্যা, ৫ টি ডাকাতি মামলা রয়েছে।