আন্তর্জাতিক

স্কাইপি সংযোগ সীমান্ত চুক্তি; আন্দোলনের প্রস্তুতি দুদেশের নেতাদের

বিণয় সিকদার, কলকাতা, ২২ ডিসেম্বর:  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির আপত্তিতে ভারতে রাজ্যসভা এবং লোকসভায় ভারত – বাংলাদেশ সীমান্ত চুক্তির সংশোধনী বিল পাশ না হওয়ায় বড় আন্দোলনে নামছে দুদেশের ছিট মহলের বাসিন্দারা।

রোববার বিকেলে দুই  দেশের ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির নেতারা ছিটের বাসিন্দারা স্কাইপির মাধ্যমে সেই আন্দোলনের প্রস্তুতি ও কর্মসূচি  তৈরি করেন।

স্কাইপিতে বাংলাদেশের পঞ্চগড় ও কুড়িগ্রাম থেকে মফিজুর রহমান, গোলাম মোস্তফারা যুক্ত হন পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার  জেলার দিপ্তীমান  সেনগুপ্তের সাথে। ভারত – বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির ওই তিন  নেতা ঠিক করেন, নতুন বছরের ২ জানুয়ারি  থেকে পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার জেলা থেকে চার লাখ মানুষের স্বাক্ষর সংগ্রহ করা হবে।

অন্যদিকে বাংলাদেশের পঞ্চগড়, নীলফামারি, লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম  থেকে চার লাখ স্বাক্ষর সংগ্রহ করবে কমিটির বাংলাদেশী  নেতারা এবং সংগৃহীত স্বাক্ষর ভারত ও বাংলাদেশের সরকার এবং বিরোধী দলের কাছে জমা  দেবেন।

ভারত – বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির পশ্চিমবঙ্গের নেতা দিপ্তীমান  সেনগুপ্ত বলেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকার বারবার বলছে উত্তরবঙ্গের মানুষের ইচ্ছার বিরুদ্ধে এবং ছিটমহলবাসীর সাথে আলোচনা না করে চুক্তি নিয়ে তারা মত  দেবে না তাই কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কমিটির বাংলাদেশের নেতা মফিজুর রহমান ও  গোলাম মোস্তফা বলেন, ১৬ জানুয়ারির পর তারা রাজধানী ঢাকাসহ কুড়িগ্রাম ও পঞ্চগড়ে বিক্ষোভ মিছিলের মাধ্যমে আন্দোলনে নামবেন।