ঢাকা বিনোদন

বাজিমাত প্রথম দিনেই ধুম থ্রি’র

 আফিফা জামান, ঢাকা, ২২ ডিসেম্বর: বলিউডের দর্শকদের কাছে এ বছরের সবচেয়ে কাঙ্খিত সিনেমা ‘ধুম-থ্রি’ উদ্বোধনী দিনেই আগের সব রেকর্ড ভেঙ্গে দিয়েছে। আমির খান, ক্যাটরিনা কাইফ, অভিষেক বচ্চন ও উদয় চোপরা অভিনীত এই ছবিটি বক্স অফিসে হিন্দি সংস্করনে ৩৩.৪২ কোটি এবং তামিল ও তেলেগু সংস্করনসহ মোট ৩৬.১২ কোটি রুপি ব্যবসা করেছে। যা শাহারুখের ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ ও হৃত্বিক রোশনের ‘কৃশ-থ্রি’-এর চাইতেও বেশী।
তরন আদর্শ টুইটারে লেখেন, ‘ধুম থ্রি হিন্দি সংস্করনে ৩৩.৪২ কোটি এবং তামিল ও তেলেগু সংস্করনে ২.৮০ কোটি অর্থাৎ, মোট ৩৬.২০ কোটি রুপি আয় করেছে’।

বলিউডের বাণিজ্য বিশ্লেষক তরন আদর্শের টুইট অনুযায়ী, ধুম থ্রি সাধারণ কর্মদিবস শুক্রবারে মুক্তি পেয়েও সংগ্রহ করেছে ৩০ কোটি রুপির বেশী। যা আগের সমস্ত রেকর্ডকে ভঙ্গ করে দিয়েছে। আসলেই ধুম-থ্রি বক্স অফিসের ধামাকা।

‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল ঈদের ছুটিতে, জনপ্রিয় এই ছবিটি সংগ্রহ করেছিল ৩৩.১২ কোটি রুপি। আর ‘কৃশ থ্রি’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল পহেলা নভেম্বর। দিনটি ছিল স্বাভাবিক কর্ম দিবস। আর, তখন এটি সংগ্রহ করেছিল ২৫ কোটি রুপি।

২০১৩ সালের একেবারে শেষে মুক্তি পেয়েও মনে হয় বক্স অফিসের সব ছবির রেকর্ডকে চূর্ন-বিচূর্ন করে দিবে ‘ধুম-থ্রি’। দ্রুত টাকা উপার্জনের তালিকায় আমির খানের ‘থ্রি ইডিয়টস’-এর তিন বছর পর শাহারুখ খানের ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ জায়গা করে নেয়। আর তার পরেই হৃত্বিক রোশনের ‘কৃশ থ্রি’ এসে আবার বদলে দেয় হিসাব। ‘কৃশ থ্রি’-এর পনের দিনের ব্যবসার রেকর্ড ২২৮.২৩ কোটি, ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’-এর ২২৬.৭০ কোটি এবং ‘থ্রি ইডিয়টস’-এর ২০২.৫৭ কোটি রুপি।

সবার দৃষ্টি এখন ‘ধুম থ্রি’-এর ওপর। ছবিটি হয়তো ২০১৩ সালকে বিদায় জানাবে মহা বিস্ফোরনের সঙ্গে। যে বিস্ফোরনে ভেঙ্গে যাবে অন্যান্য সব ছবির ব্যবসায়িক সাফল্যের সমস্ত রেকর্ড।