ঢাকা সাহিত্য

ডা. মো.আলাউদ্দিন-এর কবিতা; মানুষের সংজ্ঞা

ডা. মো.আলাউদ্দিন-এর কবিতা; মানুষের সংজ্ঞা :ওরা মানুষ না। ওরা মার্কিন,
ওরা আফগান, কেউবা রোহিঙ্গা।
কবে থেকে বুঝিনা কেন
পাল্টালো মানুষের সংজ্ঞা!
ঐযে শিশু, নিষ্পাপ দুটি চোখ,
ও চোখে একটা অবাক পৃথিবী।
নেইতো ওখানে কাঁটাতার, সীমানা
বিষ্ময় ভরা সব ছবি।
ঐ যে অবুঝ শিশু!
ভালবাসা পেলে ভুলে যায় সব,
ভালবাসে কেবল খেলা।
চেনে না ওরা আগুন পানি,
চেনে না রাইফেল, অস্ত্র গোলা।
শ্লোগান দেয়না, বিপ্লব বোঝে না
একটু শুধু কাঁদতে জানে
পেটে গেলে কিছু ভুলে যায় তাও,
জানতেও চায় না আছে কোনখানে

ওই যে শিশু ,
কথা বলে সব ভাষায়
হাতে গোনা গোটা শব্দে।
তবে কেন তার রক্ত ঝরাবে
ওরে পাষণ্ড! জবাব দে।
জবাব দে ও কোন ধর্ম মানে
সেজদা প্রনাম? কোনখানে ?
আল্লাহ, ভগবান কিংবা যিশু
কৃষ্ণ বুদ্ধরে কি বলেছে মানে?
পোশাক আশাক খাদ্যাভ্যাস
পার্থক্য করবে কোনটা দিয়ে?
ওরা মাসুম!
দেখে শুধু রং-আলো-আঁধার
বিষ্ময় ভরা অবাক নিয়ে ।
তবে কেন ওরা হিন্দু খ্রিস্টান
কেন ওরা হবে গুজরাটী তালেবান?
কেন বল না `ওরা আমাদেরই`
কেন মান না ওরা মানুষের সন্তান।
ঐ যে রক্তের ধারা!
রাঙ্গিয়ে দিল মলিন ধুলোরে নাদান শিশু যারা।
কি পার্থক্য বল খুঁজে পেলে,
সে কোন নতুন পরিচয়?
মানুষের রক্তে লাল হল ভূবন
মানুষই যে কলঙ্কময়!
বলছি শোন আমি,
একদিন জবাব খুঁজছো যারা
পেয়ে যাবে ঠিক ঠিক।
যেদিন লাগবে ঝাঁকা পাল্লার কাঁটা
ঝুঁকবে উল্টো দিক।