খুলনা জাতীয় বাগেরহাট

বাগেরহাটে প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে মিছিল

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটে বৃহস্পতিবার সকালে প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চ বাগেরহাট সদর উপজেলা শাখা ও বাগেরহাট জেলা মুক্তিযোদ্ধার সংসদ সন্তান কমাণ্ড নামে দুটি সংগঠন। পাক হানাদারদের দোসর যুদ্ধাপরাধী ও মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডিতদের ফাঁসির রায় বাস্তবায়ন ও জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করা হয়। কর্মসূচির প্রধান অতিথি হিসেবে মিছিলে ছিলেন বাগেরহাট-২ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় জাতীয় সংসদ সদস্য মীর শওকাত আলী বাদশা।এদিকে প্রকাশ্যে কয়েকটি একনলা ও দোনলা বন্দুক নিয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করার সময় সাধারণ মানুষের মধ্যে রিরূপ ভাব দেখা দেয়। মিছিলথেকে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে, বাংলাদেশের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে পাকিস্তান সরকারের অযাচিত মন্তব্য ও জামায়াত শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে শ্লোগান দেয়া হয়। বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মিছিল শহীদ মিনারে এসে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। প্রধান অতিথি মীর শওকাত আলী বাদশাসহ অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের জেলা কমিটির আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা শেখ শওকত হোসেন,সদস্য সচিব মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান বাদশা, সদর থানা কমিটির সদস্য সচিব মুক্তিযোদ্ধা শেখ হেমায়েত হোসেন, বাগেরহাট মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ডের জেলা সভাপতি মাসুম হাওলাদার প্রমূখ। প্রকাশ্য মিছিলে এভাবে আগ্নেয়াস্ত্র বহন করে জনমনে ভীতি সৃষ্টির কারণ জানতে চাওয়া হলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের সদস্য সচিব মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান বাদশা বলেন, ‘আমাদের মিছিলে চারটি বৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ছিলো। আগ্নেয়াস্ত্রের বৈধ মালিকরাই তা বহন করেছেন। বাংলাদেশের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে পাকিস্তান সরকারের নাক গলানোর দু:সাহস ও এদেশে তাদের দোসরদের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে এটা ছিল একটি প্রতিকী প্রদর্শন। আমরা তাদের বোঝাতে চেয়েছি যে, মুক্তিযোদ্ধারা এখনও অস্ত্র হাতে তাদের মোকাবেলা করতে প্রস্তুত।’এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার মো: নিজামুল হক মোল- া এই প্রতিবেদককে বলেন, বৈধ আগ্নেয়াস্ত্র হলেও কোন অবস্থাতেই এভাবে প্রকাশ্য মিছিলে তা প্রদর্শন করা যায় না। মুক্তিযোদ্ধারা শহরে মিছিল করেছে জানি কিন্তু তারা আগ্নেয়াস্ত্র বহণ করেছেন বলে শুনিনি। বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখবো।