ঢাকা বিনোদন

জাতিস্মর-চাঁদের পাহাড় বিতর্কে প্রসেনজিৎ

বিনোদন ডেস্ক,ঢাকা, ১৪ ডিসেম্বর: ‘জাতিস্মর আর চাঁদের পাহাড়ের কোনও বিরোধ একেবারেই নেই। এমনটা মনে করার কোনও কারণ নেই যে চাঁদের পাহাড়ের ভয়ে জাতিস্মরের মুক্তির দিন পিছিয়ে দেওয়া হল’। মিডিয়ার সামনে সরাসরি ‘জাতিস্মর’-এর মুক্তির সংশয় মেটাতে মুখ খুললেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। ভারতের কলকাতার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের অনলাইন সস্করণ থেকে এমন তথ্যই জানা গেছে। রিলায়েন্স-এর ছবি `জাতিস্মর`। নায়ক প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় তাদের বাজি। ভেঙ্কটেশ-এর পাল্টা চাল- `চাঁদের পাহাড়`। নায়ক দেব এবং পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়। দু`টোই হাই-বাজেট, হাই-ভোল্টেজ ছবি। দু`টোতেই থাকার কথা নানা চমক। কলকাতার বক্স অফিস তাই অপেক্ষায় আছে এক `তথাকথিত` মহারণের জন্য। এতকাল এমনটাই ভাবা হয়েছিল, কিন্তু এই ভাবনায় জল ঢাললেন প্রসেনজিৎ নিজেই।

একদিকে ভেঙ্কটেশ ফিল্মস-এর শ্রীকান্ত মেহতা, অন্যদিকে রিলায়েন্স এন্টারটেনমেন্টের কর্ণধার রানা সরকারকে নিয়ে মধ্যমণি হয়ে, আভাসে, ইঙ্গিতে টলিউডের এই নায়ক জানিয়ে গেলেন বাংলা ছবির বাজারকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্যে দুটো ছবিরই সমান গুরুত্ব। `দেব আমার ভাইয়ের মতো। এই প্রথম কমার্শিয়াল ছবি থেকে সরে এসে দেব অন্য ধারার ছবি করছে। সেখানে আমাদের প্রত্যেকের উচিত ওকে সাপোর্ট করা। চাঁদের পাহাড়-এর মতো ছবি যে টলিউডে হবে সেটা কি স্বপ্নেও ভেবেছিলাম আমরা`? প্রশ্ন তোলেন প্রসেনজিৎ।

রানা সরকার যোগ করেন, `জাতিস্মরের ২২টা গান। সেখানে একটি গান ভি মুভিজ থেকে নেওয়া। আমরা ছবিটি তৈরির ক্ষেত্রেও ভেঙ্কটেশ-এর কাছ থেকে প্রচুর সাহায্য পেয়েছি। এই একই জায়গায় বসে আমরা পরস্পরের সাথে যোগাযোগ রেখে গেছি।

যে ছবির কাজ আগে শেষ হবে, ঠিকই ছিল সেই ছবি আগে রিলিজ হবে। জাতিস্মরের পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ এখনও বাকি। আর সবচেয়ে বড় কথা সৃজিত এখন অসুস্থ। ও সুস্থ না হলে জাতিস্মর কবে আসবে বলা যাচ্ছে না`।

`তবে চাঁদের পাহাড় কুড়ি ডিসেম্বরই আসছে`- জানালেন শ্রীকান্ত মেহতা। ডিসেম্বরের সাতাশে সারা ভারতে ছবিটি মুক্তি পাবে আর আমেরিকায় জানুয়ারির দশ তারিখে কুড়িটি হলে ‘চাঁদের পাহাড়’-এর আন্তর্জাতিক রিলিজ।

প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয় যতই এড়ানোর চেষ্টা হোক না কেন, ‘চাঁদের পাহাড়’-এর পরীক্ষার শেষ নেই। ‘চাঁদের পাহাড়’ ‘ধুম থ্রি’-র সঙ্গে কতটা ধুম মচাবে, এখন সেটাই দেখার।