গোপালগঞ্জ জাতীয় ঢাকা

সেচ্ছাশ্রমে নির্মিত দু’কিলোমিটার রাস্তা পাল্টে দিল এলাকাবাসীর জীবনযাত্রা

গৌরাঙ্গ লাল দাস, কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ সেচ্ছাশ্রমে নির্মিত দু’কিলোমিটার রাস্তা পাল্টে দিল এলাকাবাসীর জীবনযাত্রা।দু’কিলোমিটারের এই রাস্তাটি নির্মিত হওয়ায় এলাকার প্রায় ২০ হাজার জনগন সহজেই উপজেলা সদরে আসতে পারছেন।বছরের অধিকাংশ সময় যেখানে জনগণের নৌকায় চলতে হতো,সেখানে আজ রাস্তা দিয়ে জনগণ চলাচল করছেন।ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুল কলেজে যেতে নৌকার অপেক্ষায় থাকতে হয় না।গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের কয়েক জন যুবকের উদ্যোগে এই কাজটি সম্ভব হয়েছে। সরেজমিনে জানাগেছে,নিন্ম জলাভূমি বেষ্টিত কান্দি ইউনিয়নের আমবাড়ী,ভেন্নাবাড়ী,গজালিয়া, তালপুকুরিয়া গ্রামের জনগণদের যাতায়াতের একমাত্র অবলম্ভন ছিল নৌকা।নৌকার উপর নির্ভর করে এদের দৈনন্দিন কাজ করতে হতো।মাত্র দু’কিলোমিটার রাস্তার জন্য বিদ্যুৎ, স্বাস্থ্য ,শিক্ষাসহ আধুনিক অনেক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছে এই চারটি গ্রামের জনগণ। এ অবস্থায় এই দু’কিলোমিটার রাস্তা নির্মানের জন্য এলাকার চৈতন্য পান্ডে,বাসুদেব গাইন, শ্রীবাস গাইন,দিপংকর বিশ্বাস, চাঁনমিয়া নামে পাঁচ যুবক এগিয়ে আসেন।এলাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে এই চার যুবক দক্ষিণ ধারাবাশাইল বীনাপানি পাঠাগার থেকে আমবাড়ী পর্যন্ত এই দু’কিলোমিটার রাস্তা সেচ্ছাশ্রমে নির্মান করেন।  বৃহস্পতিবার পৌরমেয়র এইচ এম অহিদুল ইসলাম এই রাস্তাটির উদ্বোধন করেন।এ সময় কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ গৌরাঙ্গ লাল চৌধুরী , সহকারী অধ্যাপক কার্ত্তিক চন্দ্র বিশ্বাস, কান্দি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মনিন্দ্র নাথ রায়, সাধারন সম্পাদক খোকন চন্দ্র বাড়ৈ,শিক্ষক রমেশ চন্দ্র বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন। পৌরমেয়র এইচ এম অহিদুল ইসলাম বলেন, সরকারের পাশাপাশি দেশের প্রতিটি  এলাকায় যদি স্থানীয় জনসাধারনের উদ্যোগে এ ভাবে সেচ্ছাশ্রমে রাস্তা নির্মান করা হয় তাহলে গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়ন সহজ হবে।