খেলা

জাতীয় দলকে হারালো ‘এ’ দল

স্পোর্টস রিপোর্টার ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর: জাতীয় দলকে হারিয়ে দিলো বাংলাদেশ ‘এ’ দল। জুনিয়রদের হাতে মাত্র ১২ রানে পরাজিত হলো সিনিয়র টাইগাররা।
জুনিয়র টাইগারদের দেয়া ১৭২ রান তাড়া করতে নেমে ৫ উইকেট হাতে রেখে ১৫৯ রানে আটকে যায় মুশফিকের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ জাতীয় দল।
মঙ্গলবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিকেল ৫ টায় মুখোমুখি হয় এই দুই দল। টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ‘এ’ দলের অধিনায়ক নাসির হোসেন।
ব্যাটিংয়ের শুরুতেই জহুরুল ও ইমরুল কায়েস ৩৫ রান যোগ করেন। জহিুরুল (১০) দলীয় ৩৫ রানে ফিরে যাবার ৪ রান যোগ হতেই সাজঘরের পথ ধরেন মার্শাল (১)।
এরপর ইমরুল ও মুমিনুল দলকে ৭৭ রান পর্যন্ত টেনে নিয়ে যান। ব্যাক্তিগত ৪৩ রানে ইমরুল মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের বলে সরাসির বোল্ড হন। প্রিমিয়ার লিগে ধারাবাহিক ক্রিকেট খেলা এই ক্রিকেটার ৩৬ বলে ৩টি চার ও ৩টি ছয়ে ৪৫ রান করেন। দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করেন মুমিনুল হক। ১৭ বলে ৪টি চার ও ১টি ছয়ের মারে ৩১ রানের ঝড়ো এক ইনিংস খেলেন তিনি।
অধিনায়ক নাসির ১৭ রান করেন ১১ বলে। শেষ দিকে ফরহাদ রেজার ২৪ ও আলাউদ্দিন বাবুর ১৬ রানের ইনিংসে ভর করে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রানের পুঁজি পায় ‘এ’ দল।
জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে আনামুল হক ও শামসুর রহমানের হাতে জাতীয় দলের শুরুটা ভালোই হয়। ৫৫ রানের জুটি গড়েন তারা।আনামুল ৩০ রানে বিদায় নেবার পর ক্রিজে এসে মুশফিক হাত খুলে মেরে খেলেন। দ্রুত ২১ বলে ৩৩ রান তুলে নিয়ে দলীয় ১১০ রানে সাজঘরে ফিরেন।
২ রানের ব্যবধানে শামসুর রহমান (৪৮) ইলিয়াস সানীর শিকার হলে চাপে পড়ে জাতীয় দল। এরপর আর পেরে উঠেনি সিনিয়ররা।
নাঈম ইসলামের ২০ ও জিয়াউর রহমানের ১৬ রানের সুবাদে পরাজয়ের ব্যবধান কমায় তারা। ৫ উইকেটে ১৫৯ রান করেন জাতীয় দল।
‘এ’ দলের হয়ে ইলিয়াস সানী ৩০ রানে ২টি ও আরাফাত সানী ও নাসির হোসেন ১টি করে উইকেট নেন। ১৬ রানে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন আরাফাত সানী।