অপরাধ বরিশাল ভোলা

আলীনগরে বসত বাড়ীতে হামলা-লুট-পাট; ক্ষতি কয়েক লাখ টাকা

 ভোলা প্রতিনিধি:  ভোলা সদর উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের হাজির হাট এলাকায় দাবীকৃত চাঁদার টাকা না দেয়ায় এক বসত বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুট-পাট করেছে দুর্বৃত্তের দল। এতে ওই পরিবারের কয়েকলাখ টাকা ক্ষতি সাধিত হয়। ভিকটিম সূত্রে জানা যায়, হান্নান বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের কাচিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তাদের বসত ভিটা নদী ভাঙ্গনের কারণে বর্তমানে তারা আলীনগর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের হাজির হাট এলাকার মুন্সি চৌকিদার বাড়ীতে এসে বসতি স্থাপন করে। এখানে তারা নতুন বাড়ী করায় ওই এলাকার কিছু উচ্ছৃঙ্খল দুর্বৃত্ত হান্নানের কাছে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত ওই টাকা না দেয়ায় দুর্বৃত্তের দল রুহুল আমিনের নেতৃত্বে জামাল, রিপন, জাহাঙ্গীর, রুবেল আলাউদ্দিন তার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুট-পাট করে নগদ অর্থসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকা নিয়ে যায়। এতে মোঃ হান্নান বাদী হয়ে ভোলা  চীফ জুডিশিয়ার ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি সিআর মামলা করেন। যা নং- ৬৭৪/১৩। হান্নান গংদের মামলার পর রুহুল আমিন গং রা উল্টো হান্নানকে প্রধান আসামী করে আরো ৩ জনের রিুদ্ধে চাঁদাবাজীর মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় রুহুল আমিন গং রা উল্লেখ্য করেন যে হান্নানরা তার নিকট থেকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে। প্রাণভয়ে হান্নানকে ২০ হাজার টাকা প্রদান করে। বাকি ৩০ হাজার টাকার জন্য গত ১৬ সেপ্টেম্বর রুহুল আমিনের উপর হামলা চালায় মান্নান। তখন তাদের সাথে থাকা নগত অর্থ সহ মোট ১ লাখ ১০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এই ঘটনায় ভোলা থানায় একটি মামলা দায়ের করে। মামলা নং-৩৪। এদিকে হান্নান বাদী হয়ে পুনরায় রুহুল আমিনকে প্রধান আসামী করে ৯ জনের বিরুদ্ধে ভোলা সদর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে আরো একটি সি আর মামলা দায়ের করেন।কিন্তু এই মামলাটি উভয় গ্রুপের মধ্যে মিমাংসার পর তুলে নেয়া হয়। এরপর দীর্ঘদিন যাবত ওই দুর্বত্তের দল হান্নানের বাড়ীতে  বিভিন্নভাবে অসামাজিক কার্যকলাপ করতে থাকে। তাদের এই কার্যকলাপে বাঁধা দেয়ায় হান্নাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিদেয় তারা। প্রাণ ভয়ে হান্নান বাড়ী ছেড়ে ভোলায় ঘর ভাড়া করে চলে আসে। এই সুযোগে দুর্বৃত্তের দল গত শনিবার ৭ নভেম্বর গভীর রাতে হান্নানের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুট-পাট করে। ঘরে  থাকা সোফা, টিভি, মটর, বিদ্যুতের লাইন কেটে দেয়া এবং নগদ অর্থসহ প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। পরদিন হান্নান বাড়ীতে গিয়ে এসব দেখে স্থানীয় লোকজনকে ডেকে অবহিত করান। এতে ক্ষিপ্ত রুহুল আমিন, আলাউদ্দিন ও আকবরের নেতৃত্বে ৪/৫ জন জনসম্মুখে হান্নানকে মারধর করে এবং তাদের বাড়ীতেই বাহির থেকে তালা মেলে আটকে রাখে। এই খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তালাবদ্ধ অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে হান্নানের স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তারা এখানে নতুন বসত-বাড়ী নির্মাণ করে বসবাস করছেন। তখন থেকেই কিছু দুর্বৃত্তের দল তাদের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে আসছিলো। তাদের দাবীকৃত ওই চাঁদার টাকা না দেয়ায় বর্তমানে তাদের উপর এই অনাবিক নির্যাতন চালানো হচ্ছে। তিনি সৃষ্ট এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করার মাধ্যমে সঠিক বিচার দাবী করছেন প্রশাসনের নিকট।