অর্থ ও বাণিজ্য ঢাকা

রাজনৈতিক অস্থিরতায় ইউনূসের উদ্বেগ

 অর্থনৈতিক প্রতিবেদক, ঢাকা, ৮ ডিসেম্বর:   নাজুক অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস। সঙ্কট উত্তরনে রাজনৈতিক দলগুলোকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।   রোববার সকালে মিরপুরে ইউনূস সেন্টারে বাংলাদেশ যুব অর্থনীতিবিদ ফোরামের একটি প্রতিনিধি দল তাঁর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।  আলোচনায় তিনি  এ উদ্বেগের কথা প্রকাশ করেন।

এসময় ড. ইউনূস আরো বলেন, বাংলাদেশ অনেকদূর এগিয়েছে। প্রযুক্তিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে। ২০৩০ সালের পর বাংলাদেশে একজনও গরিব মানুষও থাকবে না। ২০১৫ সালের মধ্যেই সারাবিশ্ব থেকে গরিবের সংখ্যা অর্ধেকে নেমে আসবে এবং পরবর্তী ১৫ বছরের জন্যে জাতিসংঘ হয়তো আমার বক্তব্য সমর্থন করেই পরিকল্পনা ঘোষণা করবে।

সামাজিক ব্যবসা সম্পর্কে তিনি বলেন, সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমেই বিশ্বকে পরিবর্তন সম্ভব। কেননা, সমাজিক ব্যবসা হচ্ছে ব্যক্তিগত মুনাফা বিবর্জিত ব্যবসা। চলমান পুঁজিবাদী অর্থনীতিতে সকলেই অর্থের পিছনে ছুটছে। দান-খয়রাতের অর্থ দিয়ে আগানো সম্ভব নয়। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলছে। গ্রামীণ ব্যাংক সম্পর্কে ড. ইউনূস বলেন, যে গ্রামীণ ব্যাংক দেশে দেশে মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পাচ্ছে, সেই ব্যাংকের উপর আঘাত হানা হয়েছে।

যুব অর্থনীতিবিদ ফোরামের প্রবীণ নেতা মেজর (অব.) এম এম মেহবুব রহমানের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে ছিলেন ফেরামের প্রেসিডেন্ট মির্জা ওয়ালিদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. জাকারিয়া হায়দার, গবেষক ড. মো. এমতাজ হোসেন. ড. মোস্তফা কামাল পাশা, খন্দকার শফিকুল হাসান রতন, অধ্যক্ষ মো. সালাউদ্দিন ভূইয়া, কাওসার জামান বাবলা, সৈয়দ মোজাম্মেল হোসেন শাহীন, ওয়াসিম সিদ্দিকী, সহিদুর রহমান প্রমুখ।