অপরাধ দিনাজপুর রংপুর

নাবালিকা অপরহরন থানায় মামলা নিতে টালবাহানা

মো.নুরুন্নবী বাবু.দিনাজপুর প্রতিনিধি ০৮ ডিসেম্বর ২০১৩: দিনাজপুরের হাকিমপুরের পৌর এলাকাধীন মধ্য বাসুদেবপুর মহল্লার মোনয়ারা খাতুন মোনা (১২) নামক এক নাবালিকা কন্যাকে অপহরন করার ঘটনা ঘটেছে। তার পিতা আ. মতিন এ অভিযোগ করেছেন। আ. মতিন জানান, একই এলাকার জাহিদুল ইসলাম তেলি (১৮), তাঁর পিতা রাশেদুল ইসলাম (৫৫), মাতা মায়া বেগম (৪৫), ফেরদৌস আলীর পুত্র হাসান আলী (৩৫), আ. রহিম উদ্দিনে পুত্র বাচ্চু মিয়া (৩৫) ও রাশেদুল ইসলাম (৫৫) পিতা অজ্ঞাত এক জোট হইয়া গত ৫/১২/২০১৩ইং তারিখে রাত্রি ৮ ঘটিকায় তাঁর কন্যা মোনয়ারা খাতুন মোনা কে বিভিন্ন রকম প্রলোভন দেখিয়ে তাঁর বাড়ীতে রাখা ৬০ হাজার টাকাসহ নিজ বাড়ী হতে তাঁকে অপহরন করেন। এ সময় অপহৃতার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বাড়ীতে অনুপস্থিত ছিলেন। এঘটনার পরপরই অপহৃতার পরিবারের সদস্যরা বাড়ীতে আসার পর ঘটনাটি জানতে পেরে অপহৃতার মাতা মায়া বেগম ও অপহৃতার এক ভাই ইদুল বিবাদী পক্ষের নিকট বিষয়টি জানতে গেলে বিবাদী পক্ষ রাশেদুল ইসলাম ও মায়া বেগম তাঁদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এবং এর এক পর্যায়ে তাঁদেরকে মারপিট করে আহত করেন। এরপর তাঁদেরকে উদ্ধার করে হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের জরুরী বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। এব্যাপারে অপহৃতার  পিতা আ. মতিন শনিবার হাকিমপুর থানায় ১টি অপহরন মামলা দায়ের করতে গেলে থানা অফিসার ইনর্চাজ এএসএম আহসান হাবিব মামলাটি রেকর্ড না করে তাঁকে ফিরিয়ে দেন। এব্যাপারে অফিসার ইনর্চাজ এএসএম আহসান হাবিবের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগটি হাতে পাওয়ার পর উপ-পরিদর্শক
(এসআই) বেলায়েত হোসেনকে বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এরপর এসআই বেলায়েত হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি পরস্পরের মাধ্যমে শুনেছি তবে অভিযোগটি এখনও হাতে পাইনি।