আন্তর্জাতিক জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর

চলে গেলেন ম্যান্ডেলা

image_65737_0 নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ৬ ডিসেম্বর:  দীর্ঘদিন শারীরিক অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে হারই মেনে নিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম কালো প্রেসিডেন্ট নেলসন ম্যান্ডেলা। কোটি কোটি ভক্তদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন বিশ্ব শান্তির এই অগ্রদূত।

অনেকদিন ধরে ম্যান্ডেলা ফুসফুসের জটিলতায় ভুগছিলেন। নিজ বাসভবনেই চিকিতসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর।

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা সেদেশের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে দেয়া এক বার্তায় নেলসন ম্যান্ডেলার মৃত্যুর খবরটি ঘোষণা করেন। তবে তিনি ম্যান্ডেলার মৃত্যুর নির্দিষ্ট সময় জানাননি।

১৯১৮ সালের ১৮ জুলাই জন্ম নেওয়া ম্যান্ডেলা ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম রাষ্ট্রপতি। তিনি ১৯৯৪ হতে ১৯৯৯ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে ম্যান্ডেলা আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসের সশস্ত্র সংগঠন উমখন্তো উই সিযওয়ের নেতা হিসাবে বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন।

১৯৬২ সালে তাঁকে দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদী সরকার গ্রেফতার করে ও অন্তর্ঘাতসহ নানা অপরাধের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। ম্যান্ডেলা ২৭ বছর কারাবাস করেন। এর অধিকাংশ সময়ই তিনি ছিলেন রবেন দ্বীপে। ১৯৯০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি কারামুক্ত হন। এর পর তিনি তাঁর দলের হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার শ্বেতাঙ্গ সরকারের সঙ্গে শান্তি আলোচনায় অংশ নেন। এর ফলশ্রুতিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদের অবসান ঘটে এবং সব বর্ণের মানুষের অংশগ্রহণে ১৯৯৪ সালে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়।

দক্ষিণ আফ্রিকায় ম্যান্ডেলা তাঁর গোত্রের দেয়া মাদিবা নামে পরিচিত।

গত চার দশকে ম্যান্ডেলা ২৫০টিরও অধিক পুরস্কার পেয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে ১৯৯৩ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কার। তাছাড়াও তিনি ১৯৮৮ সালে শাখারভ পুরস্কারের অভিষেক পুরস্কারটি যৌথভাবে অর্জন করেন।

বিশ্বের অবিসংবাদিত এই নেতার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন নানা দেশের নেতারা।