অর্থ ও বাণিজ্য বরিশাল ভোলা

চার ফেরীঘাটে আটকা পড়ে আছে দেড় শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক ; লোকসান গুনতে হচ্ছে ব্যবসায়ীদের

ভোলা প্রতিনিধি:  ১৮ দলীয় জোটের ডাকা দ্বিতীয় দফা ৭২ ঘণ্টা অবরোধের কারণে ভোলার সাথে সারা দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ভোলা থেকে বরিশাল, চাঁদপুর, ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে ভোলার উদ্দ্যেশ্যে পণ্য নিয়ে আসা দেড় শতাধিক ট্রাক লাহারহাট, ইলিশা ও মজু চৌধুরী ফেরী ঘাটে আটকা পড়ে আছে। এদিকে এই অবরোধের কারণে ফেরী চলাচল না করায় পণ্যবাহী ট্রাকের মালিকদেরকে গুনতে হচ্ছে লোকসান। অন্যদিকে বিভিন্ন র”টে যাতায়াতকারী শত শত সাধারণ যাত্রীদেরকে পড়তে হচ্ছে নানা ভোগান্তিতে। এ ব্যাপারে লাহারহাট ফেরী ঘাটের ম্যানেজার কাওসার হোসেন জানান, অবরোধের কারণে নিরাপত্তার স্বার্থে ভোলা থেকে চাঁদপুর, ঢাকা ও চট্টগ্রামগামী ২৫টি পণ্যবাহী ট্রাক লাহারহাট ফেরী ঘাটে আটকা পড়ে আছে। অবরোধ শেষ হলে এসব ট্রাক গন্তব্যস্থলের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। এদিকে ভোলার ইলিশা ও লক্ষ্মীপুর ফেরী ঘাটের ম্যানেজার নুর”ল ইসলাম ভুইয়া জানান, ঢাকা, খুলনা ও চট্টগ্রামগামী ৭০টি পণ্যবাহী ট্রাক ইলিশা ফেরী ঘাটে এবং ঢাকা-চট্টগ্রামহস
বিভিন্ন জেলা থেকে ভোলার উদ্দেশ্যে আগত প্রায় ২৫টি পণ্যবাহী ট্রাক মজু চৌধুরী ফেরী ঘাটে আটক পড়ে আছে।
এছাড়া ভেদুরিয়া ফেরী ঘাটের ইনচার্জ মোকাম্মেল হোসেন জানান, এই ঘাটে ঢাকা, খুলনা ও চট্টগ্রামগামী
২০টি পণ্যবাহী ট্রাক এবং ভোলার বিভিন্ন উপজেলার উদ্দেশ্যে আসা ২৫টি ট্রাক আটকা পড়ে আছে। নিরাপত্তার কারণে এসব পণ্য বোঝাই ট্রাক গন্তব্যস্থলে পণ্য নিয়ে যেতে পারছে না। তাই এই তিন ফেরী ঘাটে প্রায় দেড় শতের অধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়ে আছে। মনির নামের এক ট্রাক চালকের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, অবরোধের কারণে ৩দিন যাবত ফেরীঘাটে আটকা পড়ে আছেন। সঠিক সময়ে গন্তব্যস্থলে পৌছতে পারছেন না। এতে
তাদের এবং ব্যবসায়ীদের লোকজান গুনতে হচ্ছে। ছবি-৩। ভোলার ইলিশা ফেরীঘাটে অপেক্ষেয়মান পণ্যবাহী ট্রাকের দীর্ঘ লাইন।