রাজনীতি

এবার নারী প্রার্থী বেড়েছে আওয়ামী লীগে

নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকা, ৩০ নভেম্বর: আওয়ামী লীগের দশম জাতীয় সংসদের চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। এবার গত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তুলনায় দলটির নারী প্রার্থীর সংখ্যা গত বারের তুলনায় বেড়েছে ৫ জন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেন সংসদীয় বোর্ডের সদস্য সচিব ও দলীয় সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

এবার দলটির মনোনয়ন প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা ঘোষিত হওয়ার পর দেখা যায়, এবার ২০টি আসনে মনোনয়ন মিলেছে ১৯ জন নারীর। যা নবম জাতীয় সংসদে মনোয়ন থেকে পাঁচজন বেশি।

আওয়ামী লীগ ঘোষিত দলীয় তালিকা থেকে দেখা যায়, এবার ২০টি আসনের দুটিতে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা প্রার্থী হয়েছেন। সেক্ষেত্রে বাকি ১৮টি আসনের বিপরীতে মনোনয়ন পেয়েছেন ১৮ জন। সুতরাং নারী প্রার্থীর সংখ্যা হলো ১৯ জন। অর্থাৎ বেড়েছে আগের বারের চেয়ে পাঁচজন।

এবার মনোনয়ন পেয়েছেন গাইবান্ধা-২ মাহবুব আরা গিনি, খুলনা- ৩ মন্নুজান সুফিয়ান, শেরপুর-২ মতিয়া চৌধুরী, নেত্রকোনা-৪ রেবেকা মমিন, মুন্সিগঞ্জ- ২ সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, ঢাকা-৪ সানজিদা খানম, ঢাকা-১৮ সাহারা খাতুন, গাজীপুর-৪ সিমিন হোসেন রিমি, গাজীপুর-৫ মেহের আফরোজ চুমকি, ফরিদপুর- ২ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, চাঁদপুর ৩- দীপু মনি, যশোর-৬ ইসমত আরা সাদেক, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া-২ উম্মে নাজমা বেগম, নোয়াখালী-৬ আয়েশা ফেরদৌস, চট্টগ্রাম-২ খাদিজাতুল আনোয়ার, কক্সবাজার-৩ কানিজ ফাতেমা, নেত্রকোনা-১ ছবি বিশ্বাস, মানিকগঞ্জ-২ মমতাজ বেগম এবং গোপালগঞ্জ-৩ ও রংপুর-৬ শেখ হাসিনা।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, গত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনার তিনটি আসনসহ ১৬টি আসনে গত বছর দলটি মনোনয়ন দিয়েছিল ১৪ জন নারী প্রার্থীকে। যার মধ্যে জয়ী হয়েছিল ১৩ জন। পরে গাজীপুর-৪ আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য সোহেল তাজের পদত্যাগের পর তাঁর বোন সিমিন হোসেন রিমি নির্বাচিত হন। এ নিয়ে নারী সংসদ সদস্য দাঁড়ায় ১৪ জন।

এর ১০ নভেম্বর থেকে ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়ন ফরম বিতরণ ও জমা গ্রহণ প্রক্রিয়া শেষ হয়। গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় ধারাবাহিকভাবে সাতটি বিভাগের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করে।