অপরাধ বরিশাল ভোলা রাজনীতি

১৮ দলের বিক্ষোভ সকল প্রকার চলাচল বন্ধ

  ভোলা প্রতিনিধি :  নির্বাচনের তফসিল বাতিল ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে ভোলায় দ্বিতীয় দিনের মত অবরোধ ও বিক্ষোভ
মিছিল করেছে বিএনপি ও বিজেপি। এ ছাড়া অবরোধের দ্বিতীয় দিনের কর্মসুচি সফল করার জন্য ভোলাকে ৪টি জোনে ভাগ করেছে
১৮ দল। অবরোধের দ্বিতীয় দিনে ৩টি অটোরিক্সা ভাংচুর এবং নাশকতা এড়াতে জামায়াত নেতা আটক করা হয়েছে। প্রথম গ্রুপ ঃ স্বেচ্ছাসেবক দলকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ভোলা খেয়াঘাট। সকাল থেকে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহব্বায়ক জামিল হোসেন ওয়াদুদ এর নেতৃত্বে অবরোধ ও বিক্ষোভ করায় ভোলা খেয়াঘাট থেকে কোন লঞ্চ বরিশাল ও ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি। দ্বিতীয় গ্রুপ ঃ জেলা যুবদল সভাপতি ইয়ারুল আলম লিটনের নেতৃত্বে যুবদল নেতা-কর্মীরা ভোলার সকল অভ্যন্তরীণ রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। বাংলাদেশ জাতিয় পার্টি, ছাত্রদল ও জামায়াত শিবির ও বরিশাল-ভোলা-লক্ষ্মীপুর মহাসড়ক অবরোধ করে সকাল থেকে সকল প্রকার যান ও ফেরী চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। সকাল থেকে বিজেপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক মোতাসিম বিল্লার নেতৃত্বে নেতা-কর্মীরা ভোলা-বরিশাল-লক্ষ্মীপুর ও ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের হাজির হাট সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। তৃতীয় গ্রুপ ঃ অপরদিকে ইলিশার পরানগঞ্জ পয়েন্টে ছাত্রদল সভাপতি খন্দকার আল-আমিন ও সম্পাদক মিজানুর রহমান মাসুদের নেতৃত্বে সকাল থেকে অবরোধ চলতে থাকায় ভোলা-লক্ষ্মীপুর ও ভোলা-বরিশাল রুটের ফেরী চলাচল বন্ধ ছিল। তবে ফেরী কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন বাস ও ট্রাক এবং নদীতে জোয়ার না থাকায় নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরী চলাচল বন্ধ রয়েছে। যানবাহন আসলেই চালু করা হবে। অবরোধ সম্পর্কে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক আকবর আখন্দ জানিয়েছেন, ১৮ দলের সিদ্ধান্ত ও জামিল হোসেন ওয়াদুদের নির্দেশ মতে অবরোধের অংশ হিসেবে সকল প্রকার লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। অবরোধ চলা পর্যন্ত লঞ্চ চলা তো দুরের কথা, একটা খেয়া নৌকাও চলতে দেয়া হবেনা।এদিকে অবরোধের দ্বিতীয় দিনে ভোলায় ৩টি অটোরিক্সা ভাংচুর করেছে ১৮ দলীয় জোটের নেতা-কর্মীরা। বুধবার সকালে ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের বেপারী বাজার এলাকায় এ ভাংচুর করা হয়। এসময় অবরোধ কারীরা ভোলা-চরফ্যাশন এবং ভোলা-লক্ষ্মীপুর-বরিশাল সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে অবরোধকারীরা। অবরোধের কারণে কোন প্রকার যান চলাচল না করায় ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে সাধারণ এছাড়া মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ভোলা শাখার প্রচার সম্পাদক বশির উল্যাহকে আটক করেছে পুলিশ। ভোলার তজুমদ্দিন থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। নাশকতার আশঙ্কায় সন্ধ্যায় মোল্লা পুকুর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এ ব্যাপারে তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জামায়াত নেতা বশির উল্যাহ তজুমদ্দিনে নাশকতার চেষ্টা করছিল এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটি টিম তাকে আটক করে। অবরোধ সম্পর্কে ভোলা পুলিশ সুপার মোহাঃ মনিরুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নাশকতা এড়ানোর জন্য শহর ও আশ-পাশের এলাকাগুলোতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল। তবে বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।