অপরাধ খুলনা সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরায় পুলিশের গুলিতে জামায়াতকর্মী নিহত

 জেলা প্রতিবেদক,সাতক্ষীরা, ২৭ নভেম্বর:  সাতক্ষীরা সদর উপজেলার শিয়ালডাঙ্গা এলাকায় পুলিশের গুলিতে শামছুর রহমান (৩৫) নামের এক জামায়াত কর্মী নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোর ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে যৌথ বাহিনী দেড় শতাধিক রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

নিহত শামছুর রহমান সাতক্ষীরা সদর উপজেলার শিয়ালডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল মাজেদের ছেলে।

সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশ পরদর্শক (তদন্ত) নাসিরউদ্দীন জানান, রাতে কয়েকশ’ পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি সদস্য আসামি ধরতে সদর উপজেলার জামায়াত অধ্যুষিত আগরদাড়ি গ্রামে অভিযান চালায়। সে সময় জামায়াত-শিবির সমর্থকরা মাইকিং করে কয়েক হাজার কর্মী সমর্থক জড়ো করে যৌথ বাহিনীর ওপর ককটেল, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। তারা রাস্তায় গাছ ফেলে যৌথ বাহিনীর সদস্যদেরকে অবরুদ্ধ করার চেষ্টা করে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে তারা ১৫০ রাউন্ড টিয়ার শেল, রাবার বুলেট, শর্টগান ও চাইনিজ রাইফেলের গুলি চালায়। এতে শামছুর রহমান নিহত হন।

পরে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে জামায়াত-শিবির পিছু হটে।

এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে আগরদাড়ি বাজারে আওয়ামী লীগ সমর্থক কার্তিক সাধু, অমিত ঘোষাল, নুর ইসলাম ও শাহ আলমের মালিকানাধীন দোকানপাট লুটপাট করে আগুন দেয় জামায়াত-শিবির।

এ সময় তারা আওয়ামী লীগ নেতা তাপস আচার্য ও গোপাল ঘোষালের বাড়ি ভাংচুর করে লুটপাট চালায়।

সাতক্ষীরা জেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আব্দুল খালেক মন্ডল জানান, ৪৫টি গাড়িতে পুলিশ বিজিবি র‌্যাব শিয়ালডাঙ্গা ও আগরদাড়ি এলাকায় গিয়ে জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করলে নেতাকর্মীরা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশের গুলিতে শামছুর রহমান নামের এক জামায়াত কর্মী নিহত হন।

সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মোল্লা জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আসামি ধরতে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।