অপরাধ কুষ্টিয়া বাগেরহাট

বাগেরহাটে সৎ মায়ের হাতে শিশু পুত্র হত্যা, ঘাতক আটক

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাট সদরের রহিমাবাদ পশ্চিম পাড়া এলাকায় ৪র্থ শ্রেনীতে পড়–য়া স্কুল ছাত্র  আসিকুর রহমান রাব্বিকে (১১) তার সৎ মা শ্বাসরোধ করে হত্যা করে গলায় গামছা পেচিয়ে ঘরের বারান্দায় ঝুলিয়ে রাখে। মঙ্গলবার দুপুরে বাগেরহাট মডেল থানা পুলিশ শিশুটির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে। এঘটনায় ঘাতক সৎ মা মারুফা বেগম (২২) পালিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিবেশীরা তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। হত্যভাগ্য শিশুটির পিতা আজিজুর রহমান জানান, তার প্রথম স্ত্রী খাদিজা বেগম অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়ার ৯ মাস পর সে খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার অন্তবনিয়া গ্রামের মোঃ হাকিম আলীর মেয়ে মারুফাকে বিয়ে করে। এই বিয়ের পর তার প্রথম স্ত্রীর সন্তান রাব্বিকে কারনে অকারনে তার সৎ মা প্রায়ই অত্যাচার নির্যাতন করতো। মঙ্গলবার সকালে গৃহকর্তা আজিজ কাজের সন্ধানে বাড়ী থেকে বের হলে রাব্বি তার সৎ মায়ের কাছে সকালের খাবার চায়। সৎ মা রাব্বিকে সকালের খাবার না দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে গলায় গামছা পেচিয়ে ঘরের বারান্দায় ঝুলিয়ে রাখে। এর সৎ মা মারুফা বেগম তার দু’বছরের শিশু পুত্র আনিসুর রহমান বাপ্পিকে নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার সময়  প্রতিবেশীদের সন্ধেহ হলে তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়।নিহত রাব্বির চাচা শেখ আঃ হাকিম ও ফুফু তহুরা বেগম জানান, রাব্বিকে প্রায়ই তার সৎ মা অত্যাচার নির্যাতন করতো ও খাবার দিতো না। এনিয়ে তাকে বারবার সর্তক করার পরও সে সংশোধন হয়নি। বাগেরহাট মডেল থানার উপ-পরিদর্শক সুভাষ চন্দ্র দাম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার ও ঘাতক সৎ মাকে আটক করেছে। এঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।