ঢাকা প্রযুক্তি

৫,৮০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ-স্যামসাং স্মার্টফোন

 ডেস্ক রিপোর্ট, ক্যালিফোর্নিয়া ২৩ নভেম্বর:  স্বত্ব-চুরির মামলায় ফের অ্যাপলের কাছে হেরে গেল প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। অ্যাপলের পেটেন্ট যুক্ত ফোনের নকশা ও প্রযুক্তি নকলের দায়ে দক্ষিণ কোরীয় সংস্থা স্যামসাংকে ৯৩ কোটি মার্কিন ডলার সমান প্রায় ৫ হাজার ৮০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ বাবদ অ্যাপলকে দিতে নির্দেশ দিয়েছে মার্কিন আদালত।

ক্যালিফোর্নিয়ার এই আদালত জানিয়েছে, ২৬টি নয়- স্যামসাংয়ের ১৩টি স্মার্টফোনের পেটেন্ট নকলের প্রমাণ মিলেছে। এর ফলে এবারের ২৯ কোটিসহ আগের ঘোষিত ৬৪ কোটি মিলে মোট ৯৩ কোটি মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে স্যামসাংকে। তবে এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের সুযোগ চেয়েছে স্যামসাং কর্তৃপক্ষ । খবর নিউইয়র্ক টাইমসের। গত বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত এই রায় প্রকাশ করা হয়।

এর আগে চলতি বছরের শুরুতে অ্যাপল-স্যামসাং আইনি যুদ্ধে ১০৫ কোটি মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল স্যামসাংকে। এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছিল স্যামসাং। আপিল গ্রহণ করে ক্যালিফোর্নিয়ার  ডিস্ট্রিক্ট জজ লুসি কোহ নতুন করে মামলাটির বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছিলেন।

বিচারক ওইসময় তার আদেশে বলেছিলেন, স্যামাসাংয়ের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণের হিসাব কষতে ভুল করেছিলেন আগের বিচারকরা। ক্ষতিপূরণের অঙ্ক ১০৫ কোটি ডলার নয় বরং ৬৪ কোটি ডলার হওয়া উচিত। বাকি ২৯ কোটি ডলার অঙ্কের উপর ফের শুনানি শুরুর পক্ষে আদেশ দিয়েছিলেন তিনি। সেই মতো গত কয়েকমাস ধরে পেটেন্ট মামলার শুনানি হয়।  এ বারে ঠিক হয় আগের ৬৪ কোটিসহ অতিরিক্ত ২৯ কোটি ডলার ক্ষতিপূরণ পাবে অ্যাপল। অর্থাৎ, পেটেন্ট চুরির মামলায় মোট ৯৩ কোটি মার্কিন ডলার বা প্রায় ৫ হাজার ৮০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ দেয়া হল স্যামসাংকে।

এরপরেও স্যামসাংয়ের সাম্প্রতিকতম মডেলগুলিতে অ্যাপলের ছাঁচ নকলের মামলা আগামী মার্চে শুরুর ঘোষণা দিয়েছে অ্যাপল। এর ফলে স্যামাসাংয়ের বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোনের বাজার হাতছাড়া হওয়ার সম্ভাবনা সামনে এসে গেলো।

সংবাদ সংস্থাগুলির খবরে বলা হয়েছে বিশ্বের ৩০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের স্মার্টফোন বাজারে দাপট বজায় রাখতে গত দু`বছর ধরে আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে দুই শীর্ষ  প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল এবং স্যামসাং। অ্যাপলের অভিযোগ ছিল আইফোনের টাচ এবং জুম প্রযুক্তি চুরি করেছে স্যামসাং। তাদের ফ্ল্যাট ফোনের নকশা, কাঁচের স্ক্রিনের নকশাও নকল করা হয়েছে। অ্যাপলের স্বত্ব-যুক্ত প্রযুক্তি-নকশা নকল করার জন্য আগেই স্যামসাংকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে মার্কিন আদালত। যদিও স্যামসাং অভিযোগ করে আসছে,  মার্কিনিদের আবেগ উস্কে দিয়ে মামলার রায় নিজেদের পক্ষে এনেছে অ্যাপল। তা ছাড়া অ্যাপল তাদের প্রযুক্তি চুরি করেছে এবং অ্যাপলের বেশ কয়েকটি পেটেন্ট অবৈধ, এমন পাল্টা মামলাও করেছে স্যামসাং নিজের দেশ কোরিয়ায়।

ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে রায় প্রকাশের সময় স্যামসাংয়ের আইনজীবী উইলিয়াম প্রাইস বলেন, সব স্মার্টফোনের এখন পাতলা চতুর্ভুজ নকশা রয়েছে। এই নকশার উপর পেটেন্ট হয় না।

স্যামসাং কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, অ্যাপলের বহু পেটেন্টের মধ্যে একটিকে সম্প্রতি মার্কিন পেটেন্ট অ্যান্ড ট্রেডমার্ক অফিস খারিজ করেছে। তা সত্বেও স্যামসাংকে ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দেয়ায় স্বভাবত তারা হতাশ।

অন্যদিকে অ্যাপলের আইনজীবীর দাবি, স্যামসাংয়ের এই চুরি কীর্তির কারণে অ্যাপলের বিপুল ক্ষতি হয়েছে। তাদেরই শীর্ষে অবস্থানের কথা ছিল যা তারা কোনওদিনই আর ফিরে পাবেন না।

অ্যাপল কর্তৃপক্ষের দাবি, আইনি মামলার মাধ্যমে ক্ষতিপূরণ জেতা নয় বরং স্টিভ জোবসের সৃষ্টিকে রক্ষা করাই অ্যাপলের আইনি এ যুদ্ধের বড় কারণ।