অপরাধ পিরোজপুর বরিশাল

ভান্ডারিয়ায় প্রবাসীর জমির মালিকানা নিয়ে দুই নয়জন গুলিবিদ্ধ-আটক দুই, ১টি শর্টগান ১৬ রাউন্ড

 কবির হোসাইন পিরোজপুর প্রতিনিধি:  পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে বিবদমান দুই পক্ষে সংঘর্ষের সময় নয়জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে।  মঙ্গলবার দুপুর তিনটার দিকে উপজেলার ইকড়ি বাস স্ট্যান্ডের কাছে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ইকড়ি ইইপ চেয়ারম্যান তানভীর হোসেন বাবু ও আমেরিকা প্রবাসী ইসমাইল হোসেন আরাফাতের  মধ্যে মাত্র সাত শতাংশ জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে। এঘটানয় ৯ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। গুলিবিদ্ধদের দুইজনকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এসময় ১টি শর্টগান ১৬ রাউন্ডগুলি উদ্ধার। আহতরা হলেন, ইকড়ি গ্রামের স্বপন তালুকদার (৩৪), ফিরোজ চৌকিদার
(৪৪),বাশার তালুকদার(৩০),জুয়েল তালুকদার(২০),বাবুল খান(৩০),সোহাগ আকন(২৮) ,সেলিম আকন(৩০) ও কামরুল মোল্লা (৩০), কামরুল ইসলাম তালুকদার(৩২)। আহতদের ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে স্বপন,ফিরোজ ও বাশারকে আশংকাজনক অবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহতরা সকলেই স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তানভীর হোসেনের পক্ষ।থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, স্থানীয় ইকড়ি ইউপি চেয়ারম্যান তানভীর
হোসেন বাবু ও আমেরিকা প্রবাসী ইসমাইল হোসেন আরাফাতের মধ্যে মাত্র সাত শতাংশ জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে দুই পক্ষে আদালতে মামলা চলে আসছে। বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মাহবুবুর রশীদ ঘটনাস্থলে বিষয়টি পরিদর্শন করেন। এরপর তিনি ঘটনাস্থল
হতে চলে আসার পর দুপুর তিনটার দিকে এক পক্ষ ইউপি চেয়ারম্যানের লোকজন প্রতিপক্ষ আমেরিকা প্রবাসি ইসমাইল হোসেনর বাসভবনে হামলার চেষ্টা চালায়। তিনি আত্মরক্ষার জন্য তার নিজের লাইসেন্সকৃত বন্দুক দিয়ে হামলাকারীদেও দিকে গুলি ছোড়েন। এসময় ইউপি চেয়ারম্যান পক্ষের আটজন গুলিতে আহত হন। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এসময় পুলিশ আমেরকিা প্রবাসী ইসমাইল হোসেন ও তার ভাই কাদিম হোসেনকে আটক করে। বিরোধী দুই পক্ষই ওই জমি ক্রয় সূত্রে মালিকানা দাবি করছে।তানভীর হোসেন তালুকদার জানান, ইকরি বাসষ্ট্যান্ডে একটি জমি নিয়ে আমার সাথে স্থানীয় পনির জমাদ্দারের বিরোধ আছে। আমি  মঙ্গলবার ওই জমিটি মাপতে যাই। এসময় এসমাইল আরাফাত ওই জমি তার দাবি করে এবং প্রথমে গালিগালাজ ও পরে আমাদেরকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। আমি লাফ দিয়ে খালে পড়ে রক্ষা পাই। এ সময় এসমাইল আরাফাতের ছোড়া গুলিতে এসব লোকজন গুলিবিদ্ধ হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত স্বপন তালুকদার ও ফিরোজ তালুকদারকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পরপরই এসমাইল আরাফাতের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি গুলি বর্ষণের অভিযোগটি অস্বীকার করে বলেন, চেয়ারম্যান তানভীর হোসেন তালুকদারের লোকজন নিজেরা নিজেরা গুলি ছোড়ে। এতে তাদের লোকজনই আহত হয়েছে। তিনি কাউকে গুলি করেননি বলে জানান। এ সময় তিনি দাবি করেন, তিনি একটি শর্টগান ব্যবহার করেন, যা থেকে র্ছরা গুলি বের হয়না।
বর্তমানে এ নিয়ে দুই পক্ষে উত্তেজনা বিরাজ করছে।এ ব্যাপারে ভান্ডারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মতিউর রহমান জমি নিয়ে দুই পক্ষে বিরোধের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,এঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। সর্বশেষ এ রিপোর্ট লেখার সময় সন্ধ্যা সাতটার দিকে ভান্ডারিয়া পুলিশ জানায় এ ঘটনায় স্থানীয় ই্কড়ি ইউপি চেয়ারম্যান তানভীর হোসেন বাদি হয়ে প্রতিপক্ষ লোকজনের নামে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মাহাবুবুর রশীদ জানান, ইকরি বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় একটি জমি নিয়ে আমেরিকা প্রবাসীএসমাইল আরাফাত ও ইকরি ইউপি চেয়ারম্যান তানভীর হোসেন তালুকদারেরসাথে বিরোধ ছিল। যা নিয়ে কিছুদিন আগে শালিশ হয়েছে। মঙ্গলবার
দুপুর ১২ টার দিকে আমি সেখানে গিয়েছিলাম। সন্ধ্যায় এ নিয়েদু’পক্ষেরই অচল নামায় স্বাক্ষর দেওয়ার কথা ছিল । কিন্তু এর আগে আবার তারাবিরোধে জড়ালো।