খুলনা জাতীয় ঝিনাইদাহ রাজনীতি

ঝিনাইদহে আওয়ামীলীগের ৩৯ নেতা মনোনয়ন পত্র ক্রয় করে জমা দিয়েছেন

Jhenidah Awami Lig Photo সিরাজুল ইসলাম মল্লিক(ঝিনাইদহ): আগামী ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঝিনাইদহের ৪টি সংসদীয় আসনে অংশ গ্রহনের জন্য বর্তমান মন্ত্রী, সংসদীয়  স্থায়ী কমিটির সদস্য ও এমপিসহ ৩৯ আওয়ামীলীগ নেতা মনোয়নপত্র ক্রয় করে জমা দিয়েছেন। সম্ভাব্য প্রার্থীরা ১০ নভেম্বর থেকে ১৭ নভেম্বর শেষ দিন পর্যন্ত এ সব মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেন। এ আসনের ওয়ামীলীগের নেতারা এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন। এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহনে আওয়ামীলীগের টিকিটে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক এসব প্রার্থীরা দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। তারা দলীয় মনোনয়নপত্র ক্রয় ছাড়াও একাধারে কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে শুভেচ্ছা ও সাক্ষাত চালিয়ে যাচ্ছেন। যাতে তাদের লবিং পকা-পোক্ত হয়।ঝিনাইদহ-১ আসন (শৈলকুপা উপজেলা) থেকে ১১জন প্রার্থী দলের মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেছেন। এরা হলেন বর্তমান সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী
আব্দুল হাই এমপি, সাবেক সফল রাষ্ট্রদূত ওয়ালিউর রহমান হিটু, জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও শৈলকুপা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নায়েব আলী জোয়ার্দ্দার, আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবেদ আলী, সাবেক যুগ্ম সচিব মীর শাহাবুদ্দিন, আওয়ামী লীগনেতা তৈয়ব আলী জোয়ার্দ্দার, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ বাদশা আলম, শৈলকুপা থানার ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ
নেতা রেজাউল ইসলাম রাজু, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক সেক্রেটারী সামছুল ইসলাম জোহা, সুপ্রিম কোর্টের এ্যাডভোকেট ও আওয়ামীলীগ নেতা মাসুদ রুমি এবং আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাডভোকেট কাজী আজাদ।ঝিনাইদহ-২ (ঝিনাইদহ সদরের একাংশ ও হরিণাকুন্ডু উপজেলা) আসন থেকে মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেছেন ১০ জন। এরা হলেন-জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ও বর্তমান সংসদ সদস্য সফিকুল ইসলাম অপু, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য নুরজাহান বেগম, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক এ্যাড.আব্দুর রশিদ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস, বিশিষ্ট র্মাসিটিকাল ব্যবসায়ী নাসের শাহরিয়ার জাহেদী মহুল, সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান এজেএডএম রশিদুল আলম এবং শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম সরোয়ার সউদ ও হরিণাকুন্ডু উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আবজাল হোসেন।ঝিনাইদহ-৩ আসন (মহেশপুর ও কোটচাঁদপুর উপজেলা) থেকে ১১জন প্রার্থী দলের মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেছেন। এরা হলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আজিজুর রহমা, আওয়ামী লীগ নেতা ও বর্তমান সংসদ সদস্য শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল, মহেশপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও শাহাজালালাল ইসলামী ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাজ্জাতুজ জুম্মা, যুবলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক, জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ নবী নেওয়াজ, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও মহেশপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মইজুদ্দিন হামিদ, ঝিনাইদহ জেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক ও এসবিকের ইউপি চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল ইসলাম সাজ্জাদ, যুবলীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপ-সম্পাদক এমএম জামান মিল্লাত, কোটচাঁদপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শরিফুন নেছা মিকি, কোটচাঁদপুর যুবলীগ নেতা টিএম আজিবর রহমান মোহন, কোটচাঁদপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শাহাজান আলী এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক রেজাউল করিম টিটন।ঝিনাইদহ-৪ আসন (কালীগঞ্জ ও সদর উপজেলা) থেকে ৭ জন প্রার্থী দলের মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেছেন। এরা হলেন কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ
সভাপতি ও বর্তমান সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল আজিম আনার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ রাশেদ শমশের, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ও কালীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজু , সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম ঠান্ডু, আওয়ামীলীগ নেতা
নজরুল ইসলাম বাচ্চু ও কেন্দ্রীয় বাস্তহারালীগের সভাপতি তোফাজ্জেল