অপরাধ বগুড়া রাজশাহী শিক্ষাঙ্গন

বগুড়া আঃহক কলেজে ছাত্রদল-ছাত্রলীগ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

 বগুড়া ব্যুরো অফিস ১৯-১১-২০১৩:  বগুড়া সরকারি আযিযুল হক কলেজে ছাত্রদল-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময়  ছাত্রলীগের কর্মীরা বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরন ঘটায় এবং কয়েকটি দোকান ভাংচুর করে। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে১১ টার দিকে ধাওয়া পাল্টা  ধাওয়ার সুত্রপাত হয়ে দুই দফায় তা চলে দুপুর পৌনে একটা পর্যন্ত। এসময় পুলিশ দুই পক্ষকেই লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। জানাগছে, বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে সরকারি আযিযুল হক কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের এক কর্মীরা সাথে ছাত্রলীগ কর্মীর তর্ক বিতর্ক হয়। এর জের ধরে দু’জনই ফোন করে ক্যাম্পাসে তাদের নেতাকর্মীদেরকে ডেকে আনে। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে প্রথমে ছাত্রদল কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিল করার প্রস্তুতি নেয়। এসময় পুলিশ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা তাদেরকে ধাওয়া দিলে ছাত্রদল কর্মীরা ক্যাম্পাস ত্যাগ করে কামারগাড়ি রেলগেট এলাকায় অবস্থান নেয়। এরপর ছাত্রলীগ কর্মীরা কলেজ ক্যাম্পাসের বটতলায় অবস্থান নিয়ে মিছিল শুরু করে। এসময় পুলিশ তাদেরকে সরে যেতে বললে ছাত্রলীগ নেতারা পুলিশের সাথে তর্কে জড়িয়ে পরে। একপর্যায় পুলিশ ছাত্রলীগ কর্মীদেরকে  লাঠিচার্জ করলে তারা সেখান থেকে সরে যায়। কিছুক্ষন পর তারা সংগঠিত হয়ে কলেজ ক্যাম্পস থেকে মিছিল বের করে কামারগাড়ি এলাকায় গিয়ে ছাত্রদল নেতাদেরকে ধাওয়া করে। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। উভয় পক্ষই ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে দু’পক্ষকেই লাঠিচার্জ করে । ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলাকালে সেখানে ৪-৫টি ককটেল বিস্ফোরন ঘটে। এসময় ছাত্রলীগ কর্মীরা কামারগাড়ি এলাকায় কয়েকটি দোকান ভাংচুর করে। পরে জেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে ছাত্রলীগ কলেজ বটতলায় সমাবেশ করে। বগুড়া সদর থানার ওসি সৈয়দ সহিদ আলম জানান তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দু’ পক্ষের মধ্যে ধাওয়া শুরু হলে ছাত্রলীগের ছেলেরা ককটেল বিস্ফোরন ঘটায় এবং কয়েকটি দোকান ভাংচুরের
চেষ্টা করলে দু’পক্ষকেই পুলিশ লাঠিচার্জ করে।