অপরাধ বরিশাল ভোলা রাজনীতি

ভোলায় কালো পতাকা মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ; আহত-২০

 ভোলা প্রতিনিধি:  ভোলায় বিএনপির কালো পতাকা মিছিলে  পুলিশের লাঠিচার্জে জেলা বিএনপির সভাপতি সহ অনন্ত ২০ জন
আহত হয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যার পূর্বে শহরের মহাজন  পট্টি এলাকার সার্কুলার রোডে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা সূত্রে জানা যায়, মন্ত্রীদের পদত্যাগ পত্র জমা  দেয়ার পরও মন্ত্রিসভার বৈঠক করে সংবিধান লঙ্ঘন করার প্রতিবাদে  সোমবার কেন্দ্র ঘোষিত কালো পতাকা মিছিল বের করে জেলা  বিএনপি। কালিনাথ রায়ের বাজারস্থ জেলা বিএনপির দলীয় কার্যাল  থেকে জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীরের  নেতৃত্বে একটি কালো পতাকা মিছিল বের হয়। মিছিলটি  মহাজনপট্টি সার্কুলার রোডের সামনে এলে পুলিশি বাধার মুখে  পড়ে। এসময় বিএনপি নেতা-কর্মীরা পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে  মিছিলটি সামনের দিকে অগ্রসর হলে পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তি  শুরু হয়। এসময় বিক্ষুব্ধ বিএনপির নেতা-কর্মীদের সাথে পুলিশের  ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে  আনতে লাঠিচার্জ করে। এসময় বিএনপির নেতা-কর্মীরা  পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশের লাঠিচার্জে   জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীরসহ অন্তত  ২০ নেতা-কর্মী আহত হয়েছে।  পুলিশের লাঠিচার্জ সম্পর্কে জেলা বিএনপির সভাপতি  আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীরের সাথে কথা বললে তিনি জানান,  কেন্দ্রীয় কর্মসূচী অনুযায়ী কালো পতাকা মিছিল নিয়ে  মহাজনপট্টি আসলে পুলিশ বিনা উস্কানিতেই তাতে বাধা দেয়।  এসময় পুলিশের সাথে তাদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।  পুলিশের লাঠিচার্জে তিনি নিজেসহ বিএনপির অন্তত ২০ নেতা- কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবী করছেন তিনি। বর্তমানে জেলা  বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীর একটি  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনা সম্পর্কে ভোলা থানার সাব ইন্সপ্যাক্টর মুরাদের সাথে  যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মিছিল নিয়ে আসলে তাতে  বাধা দেয়া হয়। বিএনপির নেত-কর্মীরা বাধা উপেক্ষা করে মিছিল   করার চেষ্টা করলে তাদেরকে লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়া হয়।