জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

কড়ায়-গণ্ডায় ঋণ পরিশোধ করবে বিএনপি

 হটনিউজ প্রতিবেদক,ঢাকা:  রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি অসহায় ও নিরবলম্ব নয় বলে দাবি করে দলটির কেন্দ্রীয় দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ‘আমরা হিসাবের খাতায় বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের উপর গত পাঁচ বছর ধরে পরিচালিত সরকারের নির্যাতন-নিপীড়নের সব ঋণ লিখে রাখছি। সময় আসলে সব কড়ায়-গণ্ডায় পরিশোধ করা হবে।’ শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সরকারকে হুঁশিয়ার করে এসব কথা বলেন। সামনে কী কর্মসূচি আসছে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে রিজভী আহমেদ বলেন, ‘নতুন কর্মসূচি ঘোষিত হলে আপনারা জানতে পারবেন। আমরাও নতুন কর্মসূচির অপেক্ষা করছি। তবে আমরা কর্মসূচির মধ্যেই রয়েছি। আজও (শনিবার) কর্মসূচি ছিল। সুতরাং আমরা কর্মসূচির বাইরে নই। তবে চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চলবে।’

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবি শুধু ১৮ দলের দাবি নয়। এখন এটি গণদাবিতে পরিণত হয়েছে। আর এই দাবির আওয়াজে সরকার আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। তাই তারা গোটা জাতিকে আতঙ্কিত করে রাখার জন্য নাশকতা ও অন্তর্ঘাতের আশ্রয় নিয়েছেন। তিনি বলেন, সরকার জনগণের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ার কারণে সন্ত্রাসী ও জনগণের টাকায় কেনা বন্দুকের উপর নির্ভর করে ক্ষমতার দাম্ভিকতা দেখাচ্ছে। আর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মধ্যে যারা সরকারের সমর্থক তাদেরকে নানাভাবে সুবিধা দিয়ে বিরোধী দলের কর্মসূচি দমনে নতুন নতুন কৌশল প্রয়োগ করা হচ্ছে।

রিজভী আহমেদ বলেন, ‘বর্তমান সরকার অবৈধ। ফলে তাদের সকল কর্মকাণ্ডও অবৈধ। আর সরকারের মন্ত্রীরাও অবৈধ। যারা অবৈধ সরকারের নির্দেশ পালন করছেন তারাও অবৈধ কাজ করছেন। আর সরকারের এসব অবৈধ কর্মকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন বিরোধী দলের নেতা-কর্মীরা।’ দুদককে অকার্যকর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জোর করে ক্ষমতায় থাকতে সরকারি আমলাদের ব্যবহার করতে দুদকের ক্ষমতা খর্ব করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন তার কার্যকলাপের মধ্য দিয়ে নিরপেক্ষ ভাবমূর্তি ও পেশাদারিত্ব প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি বলেও অভিযোগ করেন রিজভী আহমেদ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, সারা দেশে ১৮ দলীয় জোটের পূর্ব ঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে অসংখ্য নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নির্যাতন-নিপীড়নের শিকার হয়েছে নেতা-কর্মীরা। দেশের বিভিন্ন স্থানে দলীয় নেতা-কর্মীদের মিছিলে নির্বিচারে গুলি চালানো হয়েছে। ঝালকাঠিতে মিছিল থেকে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমরকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তবে পুলিশ পরে শাহজাহান ওমরকে ছেড়ে দেয় বলে জানান রিজভী। তিনি জানান, ‘আজ (শনিবার) কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি চলাকালে এখন পর্যন্ত ঢাকা মহানগরসহ সারা দেশে ৫৫ জনের অধিক নেতা-কর্মী আটক এবং ১৫০ জনের অধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। তবে এখনো খবর আসছে। ফলে এ সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পেতে পারে।’