অপরাধ জাতীয় ঢাকা

পাঁচ হাজার টাকা ঘুষ নেয়ার মামলা দন্ডিত পুলিশ কর্মকর্তা শ্রীঘরে

আটক4_6816_9640  আদালত প্রতিবেদক:  মাত্র পাঁচ হাজার টাকা ঘুষ নেয়ার অপরাধে দুই বছরের কারাদ-প্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা রকিবুল হাসানকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। আসামি রকিবুল মিরপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ঢাকার বিশেষ জজ-৩ আদালতে দ-প্রাপ্ত আসামি আত্মসমর্পণ করলে বিচারক মোতাহার হোসেন গতকাল মঙ্গলবার তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন। দ-িত পুলিশ কর্মকর্তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া থানায়। তার বাবার নাম জুড়ান উদ্দিন আকন্দ। গত ৩ সেপ্টেম্বর এই আদালত তাকে দুই বছরের সশ্রম কারাদ- দেন। আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। মামলার নথি সুত্রে জানা গেছে, ২০১০ সালের ২৫ নভেম্বর ফেরদৌস আরা নামের এক মহিলা পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে মিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্তভার পড়ে ওই থানার কর্মকর্তা রকিবুল হাসানের ওপর। আসামি ধরতে তিনি মহিলার কাছে পাঁচ লক্ষ টাকা ঘুষ দাবি করেন।

ঘুষ চাওয়া ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ২০১০ সালের ৭ ডিসেম্বর দুদকের কাছে এক আবেদন করেন ওই মহিলা। আবেদনটি গ্রহণ করে দুদক । দুদকের কর্মকর্তা তৌফিক আহমেদের নেতৃত্বে একটি দল ২০১০ সালের ৯ ডিসেম্বর মিরপুর হার্ট ফাউন্ডেশনের সামনে অবস্থান করেন মহিলা ফেরদৌস আরা।

ফেরদৌস আরা তার মোবাইল ফোন দিয়ে রকিবুলকে ফোন দিয়ে টাকা নিয়ে যেতে বলেন। ফাঁদে পা দিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা মহিলার কাছে টাকা নিতে আসেন। যখন মহিলা রকিবের হাতে পাঁচ হাজার টাকা দেন, তখনই ওৎপেতে থাকা দুদক কর্মকর্তারা পুলিশকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন।’

পরে দুদকের সহকারী পরিচালক আনোয়ারুল হক বাদী হয়ে ২০১০ সালের ১৩ ডিসেম্বর আদালতে মামলা করেন। মামলায় মোট ১৪ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়।