অপরাধ রংপুর রাজনীতি

ছাত্রদলের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১০

songroso_protest-33_4184 রংপুর অফিস:  রংপুর সরকারি কলেজে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনায় ১০ জন আহত হয়েছেন। এসময় ৬টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয় মোটর সাইকেল, অটো রিকসা, ব্যানার এবং ফেস্টুন। বর্তমানে ক্যাম্পাসে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। মোতায়েন রয়েছে বাড়তি পুলিশ। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার কলেজ ক্যাম্পাসে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে কলেজ ছাত্রদল। মিছিলটি ক্যাম্পাসের সামনে এলে সেখানে দুইটি মোটর সাইকেল ও তিনটি অটোরিকসা ভাংচুর করে। পরে তারা ক্যাম্পাসে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এবং পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে বাধার সৃষ্টি করে। এর প্রতিবাদে ছাত্রলীগনেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এনিয়ে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও সংঘর্ষ। ছাত্রদলের ব্যানার ও ফেস্টুন আগুনে পুড়িয়ে দেয় ছাত্রলীগকর্মীরা। এসময় সাধারন শিক্ষার্থীরা ভয়ে ছুটোছুটি করতে থাকে। সংঘর্ষে সুমন, আরমান, সুজন, রোমান, জাভেদ, জাকিরসহ উভয় পক্ষের ১০ জন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এব্যাপারে ছাত্রদল শহর কমিটির সাধারন সম্পাদক শাহিন হোসেন জাকির সাংবাদিকদের জানান, আমাদের শান্তিপুর্ন মিছিলে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা অতর্কিত হামলা চালায় এবং আমাদের কর্মীদের আহত করে।

ছাত্রলীগ রংপুর জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ফখরুল হাসান লিউ ও কলেজ শাখার আহবায়ক মিথুন কুমার দাস জানান, কলেজের শান্তিপুর্ন পরিবেশ নষ্ট করতেই তারা ক্যাম্পাস এলাকায় ভাংচুর চালায় এবং পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে বাধার সৃষ্টি করে। তারা ক্যাম্পাসে কোন সন্ত্রাসীরা কর্মকান্ড চারাতে দেবে না বলে জানায়।

কোতয়ালি থানার ওসি শাহাবুদ্দিন খলিফা জানান, বর্তমানে ক্যাম্পাসে শান্তিপুর্ন পরিবেশ বিরাজ করছে । মোতায়েন রয়েছে পুলিশ।