অপরাধ খুলনা

পাচারকারী চক্রের হাত থেকে রক্ষা পেলো এ্যানি

jhenidah -pic সিরাজুল ইসলাম মল্লিক(ঝিনাইদহ):  পাচারকারী চক্রের হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে দক্ষিণ খাগড়া ছড়ি জেলার ২২ বছর বয়সী খাদিজা আক্তার এ্যানি । কোটচাঁদপুর ব্রীজ ঘাট এলাকা থেকে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। বর্তমানে তাকে কোটচাঁদপুর থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া এ্যানি জানান- তার বাড়ী দক্ষিণ খাগড়া ছড়ি জেলার  রামগড় উপজেলার লাংকো পাড়া গ্রামে। তার স্বামীর নাম ইব্রাহিম । স্বামী রাজ মিস্ত্রীর যোগালের কাজ করে। সংসারে অভাবের কারণে ৬/৭ মাস আগে ঢাকার ধানমন্ডিতে  হারুন সাহেবের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ নেয় এ্যানি ঝিয়ের কাজ করার এক পর্যায় হারুন সাহেব ভাল চাকুরী দেয়ার কথা বলে শুক্রবার বাবু মাষ্টার নামের এক ব্যক্তির হাতে তুলে দেয় তাকে। পরে বাবু মাষ্টারের সাথে আরো ৩ ব্যাক্তি যোগ দেয়। এরপর তারা সকলে ট্রেনে চড়ে এ্যানিকে নিয়ে ঝিনাইদহের  কোটচাঁদপুর রেলষ্টেশনে  নেমে পড়ে। ওই সকল ব্যাক্তিদের আচার-আচরণ দেখে এ্যানির মনে সন্দেহ হয়। অপরিচিত জায়গার কারণে এ্যানি মুখ খুলতে পারেনি। এরমধ্যে তারা কোটচাঁদপুর রেলষ্টেশন থেকে এ্যনিকে একটি  আলমসাধুতে উঠায়। এ্যানি আরো জানায়- আলমসাধুটি কিছু দুর যাওয়ার পর পথের মধ্যে নষ্ট হয়ে যায়। এ সময় ওই সকল ব্যক্তিরা তাকে সেখানে দাঁড় করিয়ে রেখে আরেকটি গাড়ী ভাড়া করতে যায়। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে এ্যানি সেখান থেকে সটকে পড়ে। এরপর সে কোটচাঁদপুর শহরের ব্রীজ ঘাট এলাকায় এসে কোন উপায়ন্ত না পেয়ে কাঁদতে থাকে। তাকে কাদঁতে দেখে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে মেয়েটির কাছে পুরা ঘটনা শুনে তারা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর থানায় নিয়ে যায়। কোটচাঁদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহাজান আলী জানান- মেয়েটি তাদের হেফাজতে রয়েছে,তার স্বামী ইব্রাহিমের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে। তারা এসে পৌঁছালেই এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন- মনে হচ্ছে মেয়েটিকে ভারতে পাঁচারের উদ্যেশ্যে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। ঘটনার সাথে জড়িতদের প্রকৃত পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।