জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

যেখানেই থাকি আমার মনটা থাকে টুঙ্গিপাড়ায়-প্রধানমন্ত্রী

50121_Hasina-77 গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:  এবার গোপালগঞ্জ-৩ নিজ আসনে নৌকা মার্কায় ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় আমাকে ঢাকায় থাকতে হয়। আপনারাই আমার দায়িত্ব নেন। আগামী নির্বাচনেও আপনারা নৌকায় ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করবেন। যতক্ষণ জীবিত থাকবো বাংলাদেশ ও জনগণের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাবো। আমার বাবা, মাসহ পরিবারের ১৮ জন সদস্য জনগণের জন্যই জীবন উৎসর্গ করেছেন। মঙ্গলবার বিকালে গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়ায় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গোপালগঞ্জবাসীর উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, যেখানেই থাকি আমার মনটা থাকে টুঙ্গিপাড়ায়। আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এখানেই জন্মগ্রহণ করেছেন। এখনও এখানেই তিনি শুয়ে আছেন। আমি রাজনীতি ছেড়ে অবসরে টুঙ্গিপাড়ায়ই থাকবো।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতা এলে উন্নয়ন হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য রাজনীতি করি। প্রতিটি গ্রামে গ্রামে স্কুল-কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছি। দেশের প্রতিটি ছেলেমেয়ে লেখাপড়া শিখবে। আগামীতে ক্ষমতায় এলে প্রতিটি জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, সব ধর্মের মানুষ তার নিজ ধর্ম পালন করবে। প্রত্যেক ধর্মের লোক স্বাধীনভাবে বাস করবে, আমরা দেশটাকে সেভাবেই গড়ে তুলতে চাই। এ সময় তিনি মহাজোট সরকারের নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের বিবরণ তুলে ধরেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সুভাষ চন্দ্র জয়ধরের সভাপতিত্বে জনসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম ও এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন।

প্রসঙ্গত, আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে গোপালগঞ্জ-৩ (টুঙ্গিপাড়া-কোটালিপাড়া) আসনে মনোনয়ন কিনেছেন শেখ হাসিনা।

ঢাকা, ১২ নভেম্বর (জাস্ট নিউজ) : এবার গোপালগঞ্জ-৩ নিজ আসনে নৌকা মার্কায় ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় আমাকে ঢাকায় থাকতে হয়। আপনারাই আমার দায়িত্ব নেন। আগামী নির্বাচনেও আপনারা নৌকায় ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করবেন। যতক্ষণ জীবিত থাকবো বাংলাদেশ ও জনগণের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাবো। আমার বাবা, মাসহ পরিবারের ১৮ জন সদস্য জনগণের জন্যই জীবন উৎসর্গ করেছেন।

মঙ্গলবার বিকালে গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়ায় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গোপালগঞ্জবাসীর উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, যেখানেই থাকি আমার মনটা থাকে টুঙ্গিপাড়ায়। আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এখানেই জন্মগ্রহণ করেছেন। এখনও এখানেই তিনি শুয়ে আছেন। আমি রাজনীতি ছেড়ে অবসরে টুঙ্গিপাড়ায়ই থাকবো।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতা এলে উন্নয়ন হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য রাজনীতি করি। প্রতিটি গ্রামে গ্রামে স্কুল-কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছি। দেশের প্রতিটি ছেলেমেয়ে লেখাপড়া শিখবে। আগামীতে ক্ষমতায় এলে প্রতিটি জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, সব ধর্মের মানুষ তার নিজ ধর্ম পালন করবে। প্রত্যেক ধর্মের লোক স্বাধীনভাবে বাস করবে, আমরা দেশটাকে সেভাবেই গড়ে তুলতে চাই। এ সময় তিনি মহাজোট সরকারের নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের বিবরণ তুলে ধরেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সুভাষ চন্দ্র জয়ধরের সভাপতিত্বে জনসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম ও এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন।

প্রসঙ্গত, আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে গোপালগঞ্জ-৩ (টুঙ্গিপাড়া-কোটালিপাড়া) আসনে মনোনয়ন কিনেছেন শেখ হাসিনা।