অপরাধ মৌলভীবাজার সিলেট

রাজনগরে নিরীহ পরিবার চাদাঁবাজদের আক্রমনের স্বীকার, আদালতে মামলা দায়ের

images  এম শাহজাহান আহমদ,মৌলভীবাজার:  মৌলভীবাজারের রাজনগরে ধুলিজুড়া হিন্দু সম্প্রাদায়ের অরবিন্দ দাসের নিরীহ পরিবার চাদাঁবাজদের আক্রমনেরস্বীকার ॥ আদালতে মামলা দায়ের। নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে পরিবারটি। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ধুলিজুড়া গ্রামের বিবাদীদ্বয়ের বাড়ী সংলগ্ন বাদীর ভূমিটি তার পিতার খরিদা ভূমি। উক্ত ভূমিটি তার পিতা দলিল রেজিষ্টারী মূলে খরিদা সূত্রে মালিক হইয়া সরকারী খাজনা প্রদান সহ তারা ভুগ দখল করিয়া আসিতেছি। বিবাদীগন ও তারা একই গ্রামের বাসিন্দা। বিবাদীগন অত্যান্ত খারাপ ও ভূমি দখলবাজ করাই তাদের কাজ। বিবাদীগন দীর্ঘদিন যাবৎ তাদের ভূমিটি দখল করিয়া নিয়া যাওয়ার বিভিন্ন পায়তারা করিয়া আসিতেছে এবং অরবিন্দ ও তার পরিবারের লোকজনদেরকে ভয়ভীতি মূলক হুমকী দিয়া আসিতেছে সন্ত্রাসীরা। তার পরিবার নিরাপত্তার স্বার্থে উক্ত বিষয় নিয়া রাজনগর থানায় আবেদন করিলে তার আবেদনের প্রেক্ষিতে রাজনগর থানার জিডি নং-৭৪, তাং-০২/১১/২০১৩ ইং লিপিবদ্ধ করা হয়। উক্ত জিডি খানা লিপিবদ্ধ করার সংবাদ পাইয়া ঐদিনই অথার্ৎ ০২/১১/১৩ ইং তারিখ রাত্র বেলায় বিবাদীগন আমাকে আমাদের গ্রামের রাস্তায় পাইয়া হুমকী দিয়া বলে জিডি পিডি করিয়া কোন লাভ হইবে না। যদি বাচঁতে ছাও বা জমিটি সুষ্ঠ ভাবে রক্ষণাবেক্ষন করিতে হয় তাহলে অমর দাস গংদেও ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দিলে সন্ত্রাসীরা ভূমিতে যাইবে না বা তাদেরকেও চলাফেরায় কোন সমস্য করবে না। তখন সন্ত্রাসীরা হুমকী দিয়া বলে তাহাদের দাবীকৃত টাকা ০১ দিনের মধ্যে পরিশোধ না করিলে তার ক্রয়কৃত ভূমিটি দখল করিয়া নিয়া যাইবে। তখন সন্ত্রাসীরা আরও বলে বাধা নিষেধ করিলে বিবাদীগন তাকে প্রানে হত্যার হুমকী প্রদান করে। সন্ত্রাসীদের টাকা দাবীর বিষয়টি স্থানীয় লোকজন সহ সাক্ষীদেরকে অবগত করে জমির মালিক অরবিন্দু। ইহাতে সন্ত্রাসীরা জোরপূর্বক গত ৪ নভেম্বর দুপুরে অম্যল দাসের সম্মুখে পাওয়ার টিলার নিয়া তার ভূমিতে অনধীকার প্রবেশ করিয়া হাল চাষ করিতে থাকে এবং তার জমি সংলগ্ন চারা বাড়ীতে তাদের রুপনকৃত ০৩ টি বাশ ও ১ টি গাছ কাটিয়া নিয়া যায়। যাহার মূল্য অনুমান ৭ হাজার টাকা। এলাবাসীর কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে সাক্ষীদেরকে নিয়া সন্ত্রাসীদের বাধা নিষেধ করিতে চাহিলে সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা ধারালো দা ও কুড়াল নিয়া বলে তাদের দাবীকৃত চাঁদা ২ লক্ষ টাকা না দেওয়ায় সন্ত্রাসীরা তার ভূমিতে হালচাষ করিতেছে। এলাকার লোকজন বিষয়টি মিমাংশার চেষ্টা করিলে সন্ত্রাসীরা তাহাদের দাবীতে অনড় হইয়া বলে তাহাদের দাবীকৃত চাঁদার টাকা দিলেই তাহারা হাল চাষ বন্ধ করিবে এবং আর কোনদিন ভূমিতে আসবে না। তখণ আসামীরা হুমকী দিয়া বলে তাহাদেরকে বাধা নিষেধ করিলে তাদের প্রানে হত্যা করবে বলে জানান মামলার বাদী অরবিন্দ দাস। তিনি আরো জানান তাদের অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসী। আলী আকবর তরফদার জানান, প্রভাবশালীদের ক্ষমতায় সন্ত্রাসীরা যা ইচ্ছা তাই করছে।

এব্যাপারে রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, চাদাঁবাজদের বিরোধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।