জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

মাঠ দখলে আ.লীগের ব্যাপক প্রস্তুতি

al-sm20131024183216 আছাদুজ্জামান, হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা, ২৫ অক্টোবর :  ২৫ অক্টোবর ১৮ দলীয় জোটের সমাবেশকে ঘিরে যে কোন ধরনের পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো। বিএনপি-জামায়াতের কর্মসূচির বিপরীতে যে কোনো পরিস্থিতি সামাল দিতেই এ প্রস্তুতি বলে জানা গেছে দলটির বিভিন্ন সূত্রে। এদিকে ২৫ অক্টোবরকে ঘিরে সর্বশেষ করণীয় ঠিক করতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পরে সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর অফিসে যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় শুক্রবার প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচছাসেবক লীগকে সর্তক থাকার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। ২৫ অক্টোবরকে ঘিরে যে কোন ধরনের পরিস্থিতি সামাল দিয়ে মাঠ নিজেদের দখলে রাখতে বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো। ২/৩ দিন আগেও এ ব্যাপারে নেতা-কর্মীদের যাবতীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি-জামায়াতের ক্যাডাররা মাঠে নামে নামলে পর্যাপ্ত ‘উপকরণ’ সহ শাসকদলের ক্যাডারদেরও মাঠে নামানো হবে। পাশাপাশি সাধারণ নেতা-কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে নানাভাবে তাদের উজ্জীবিত করার চেষ্টা করছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। বৃহস্পতিবার সকালেও বর্ধিত সভা করে নেতা-কর্মীদের প্রয়োজনীয় দিক নিদের্শনা দেয় মহানগর আওয়ামী লীগ। শুক্রবার আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীরা কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অবস্থান করবে। তবে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘিরে আওয়ামী লীগ শক্ত অবস্থান নেবে বলে জানা গেছে দলীয় সূত্রে।

৫ মে হেফাজতকে মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ যে প্রস্তুতি নিয়েছিলো এবার তার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করছে। রাত সাড়ে আটটার দিকে আড়াই থেকে ৩শ’ নেতা-কর্মীকে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়।

আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের কয়েকজন নেতা হটনিউজকে বলেন, আমরা আক্রমণাত্মক কিছু করবো না। শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান করবো। তবে কেউ যদি জান-মালের জন্য হুমকি সৃষ্টি করে, তবে কোন ছাড় দেওয়া হবে না। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং বিএনপি-জামায়াতকে মোকাবেলা করতে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। নেতা-কর্মীরাও প্রস্তুত রয়েছেন।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথ হটনিউজকে বলেন, যে কোন নৈরাজ্যের মোকাবেলা করতে আমরা প্রস্তুত। পাড়া-মহল্লাসহ অফিসগুলোতে অবস্থান নেব আমরা।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ হটনিউজকে বলেন, আমরা শান্তি চাই। কোন ধরনের সংঘাত বা সংঘর্ষ চাই না। তবে কেউ নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করলে যুবসমাজ, জনগণ তাদের প্রত্যাখ্যান করবে।

ছাত্রলীগ সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ হটনিউজকে বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান করবো। তবে কেউ বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করলে জনগণের জান-মাল রক্ষা করতে আমাদের নেতা-কর্মীরা তাদের প্রতিহত করবে।আগামীকালের প্রস্তুতির বিষয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী হটনিউজকে বলেন, পাড়া মহল্লায় সর্তক অবস্থায় থাকবো আমরা। অপরদিকে ঢাকা ১৫আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি ও আওয়ামীলীগ নেতা এম.সাইফুল্লাহ্ সাইফুলের নেতৃত্বে মিরপুর ১০নং গোল চক্করে ব্যাপক সংখ্যক আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মি নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান করেছে ।

এর আগে মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা থেকে যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে ‘দুশমন’ (বিএনপি-জামায়াত) প্রতিরোধ করতে নেতা-কর্মীদের নির্দেশ দেন তিনি। পাশাপাশি রাজপথে অপরিচিত কাউকে সন্দেহ হলে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন তিনি।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, যদি কেউ নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করে তবে তাদের রুখে দেওয়া আমাদের পবিত্র দায়িত্ব।