সারাদেশ হটনিউজ স্পেশাল

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে আসা তরুণীর ঠাঁই হলো কারাগারে

হটনিউজ ডেস্ক:

বরগুনার বেতাগী উপজেলার চান্দখালীতে মাহমুদুল হাসান নামে এক যুবকের বাড়িতে বিয়ের দাবি তুলে অবস্থান করে আসছিল জামালপুরের মৌ নামে এক তরুণী। অবশেষে মাহমুদুলের বাবার করা মামলায় তার জায়গা হলো বরগুনার কারাগারে।

জানা যায়, বেতাগী উপজেলার চান্দখালী বাজারের কাঠপট্টি সড়কে ২৮ এপ্রিল থেকে মাহমুদুল হাসানের বাড়িতে অবস্থান করছিল প্রেমিকা শিখা আক্তার মৌ। শুক্রবার আদালতের নির্দেশে তাকে গ্রেফতার করেছে বেতাগী থানা পুলিশ। সকাল ৬টায় মাহমুদুল হাসানের বাসা থেকে গ্রেফতার করে আদালতে নিয়ে আসা হলে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নাহিদ হোসেন তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ির মেয়ে শিখা আক্তার মৌ নিজেকে মাহমুদুল হাসানের প্রেমিকা দাবি করে তার বাসার সামনে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেন। এসময় মাহমুদ, তার বাবা-মাসহ বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা বাসায় না থাকায় বাসা তালাবদ্ধ ছিল। একপর্যায়ে স্থানীয়রা মেয়েটির নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তালা ভেঙে ঘরে অবস্থানের সুযোগ দেয়। পরে মৌ বিয়ের দাবিতে আত্মহত্যার হুমকি দেয়। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক প্রচার পায়।
গত ৫ মে মাহমুদুল হাসানের বাবা মোশারেফ হোসেন বাসায় এসে স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতিতে মৌকে দুটি শর্ত দেন। যে শর্ত পূরণ করলে তিনি ছেলের সাথে বিয়ের দাবি মেনে নেওয়ার অঙ্গীকার করেন। কিন্তু শিখা আক্তার মৌ দুটি শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে ১০ মে বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একাধিক অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। ঘরে প্রবেশ করে তাদের অবরুদ্ধ করা, আত্মহত্যার হুমকি ও ভাঙচুরসহ একাধিক অভিযোগ আনা হয় ওই তরুণীর বিরুদ্ধে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আসামির বিরুদ্ধে বেতাগী থানা পুলিশকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

বাদীর আইনজীবী সাইমুল ইসলাম রাব্বী বলেন, আদালতকে বাদীর আরজি সঠিকভাবে উপস্থাপন করতে পেরেছি। একটি পরিবারকে অবরুদ্ধ করে বিয়ের দাবিতে আত্মহত্যার হুমকি দেওয়া আইনের দৃষ্টিতে অপরাধ।