জাতীয় ঢাকা রাজনীতি

এই ভোটার তালিকায় সুস্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়- খালেদা জিয়া

khalada-0220130924211002  নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ২৫ সেপ্টেম্বর:  বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সরকারকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, ২৫ অক্টোবরের মধ্যে সংবিধান সংশোধন না হলে এবং একতরফা নির্বাচন করতে চাইলে তখন কি করতে হবে তা জনগণকে বলে দেবো। নির্বাচন কমিশনের কঠোর সমালোচনা করে বিরোধী দলীয় নেতা বলেন, নির্বাচন কমিশন এখনও সরকারের আজ্ঞাবহ। তিনি বলেন, সরকার যা বলে নির্বাচন কমিশন তাই করে। বর্তমান ভোটার তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে অভিযোগ করে খালেদা জিয়া বলেন, এই ভোটার তালিকায় গণ্ডগোল রয়েছে। এই ভোটার তালিকা দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। মঙ্গলবার রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে রংপুর বিভাগের বিএনপি নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি। আন্দোলন দমনের জন্য সরকার বিজিবি প্রস্তুত করছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, একতরফা নির্বাচন প্রতিহত করতে আমরাও জনগণকে প্রস্তুত রেখেছি। এখনও সময় আছে আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের পথ বের করুন। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে শেখ হাসিনার পদত্যাগ দাবি করে খালেদা জিয়া বলেন, এই সরকার এমনভাবে সংবিধান সংশোধন করেছেন তাতে মনে হয় বাংলাদেশ তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, তিনি গণতন্ত্র প্রিয়-সংবিধান প্রিয় হলে জনগণের নির্দলীয় সরকারের দাবি মানা উচিত। তিনি বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না, হতে দেয়া হবে না। বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, দেশের মানুষ গণতন্ত্রমনা। তারা একদলীয় শাসন থেকে মুক্তি চায়। বহুদলীয় গণতন্ত্র চায়। বিএনপি মানুষের আশ্রয় স্থল। রাজনীতিতে ভাল মানুষদের আসার আহবান জানিয়ে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা নতুন ধারার রাজনীতির কথা বলেছি। বিএনপি ক্ষমতায় গেলে নতুন ধারার সরকার গঠন করা হবে। তাই সৎ, যোগ্য মানুষকে রাজনীতিতে আনতে হবে। সম্প্রতি বিএনপি চেয়ারপারসনের রংপুরের সমাবেশে আসার সময় নিহত দলীয় দুই কর্মীর পরিবারের সদস্যরা মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটায় গুলশান কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন। স্বজনদের মধ্যে ছিলেন নিহত বিএনপি কর্মী আবেদ আলী মণ্ডলের স্ত্রী আসকিনা বেগম ও তার ছোট মেয়ে। নিহত বুলবুল আহমেদের স্ত্রী হামিদা খাতুন ও তার দুই শিশু সন্তান ও বুলবুলের মা খাদিজা বেগম। এ সময় খালেদা জিয়া পরিবারের খোঁজখবর নেন, সমবেদনা জ্ঞাপন করেন এবং আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। মতবিনিময় সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নির্দলীয় সরকারের দাবি মানতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। প্রয়োজনে রংপুর বিভাগ বন্ধ করে দেয়া হবে। এসময় অন্যদের মধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আর এ গণি, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মাহবুবুর রহমান, রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদ আসাদুল হাবিব দুলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।