আন্তর্জাতিক জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

জাতিসংঘে গেলেন প্রধানমন্ত্রী

3020130922155437 (1)  নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর:  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আট দিনের সফরে রোববার রাতে নিউইয়র্কের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। রাত ৯টার দিকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৬৮তম অধিবেশনে যোগ দিতে সফরকারী বহর নিয়ে রাজধানী ছাড়েন। খবর বাসসের।

প্রধানমন্ত্রী চার বছরের তুলনায় এবার সবচেয়ে বড় বহর নিয়ে সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক যাচ্ছেন। ক্ষমতাসীন সরকারের শেষ সময়ে প্রধানমন্ত্রীর এই সফর ঘিরে বিশেষ গুরুপ্ত পাচ্ছে দেশ-বিদেশে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। এছাড়া বেশ কিছু উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক ও দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় অংশ নেবেন তিনি।
অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী রয়েছেন ৯৪ জন এবং ব্যবসায়ী প্রতিনিধি হিসেবে নিজ খরচে গেছেন ৪৬ জন।
সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দলীয় সিনিয়র নেতাদের মধ্যে রয়েছে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ ও আমির হোসেন আমু, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদের সভাপতিম-লীর সদস্য মঈন উদ্দিন খান বাদল, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদসহ ১০ জন এমপি।
এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপদেষ্টা এম জিয়াউদ্দিন, মুখ্য সচিব শেখ মো. ওয়াহিদ-উজ-জামান, পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব আবুল কালাম আজাদ, সমাজকল্যাণ সচিব সুরাইয়া বেগম।
এই প্রথম প্রধানমন্ত্রীর নিউইর্য়ক সফরগঙ্গী হলেন ছাগলীগের সভাপতি এ এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ এবং সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম।
মহাজোটের শরিক নেতাদের মধ্যে ন্যাপ (মোজাফফর) নেত্রী আমেনা আহমেদ, গণআজাদীর সভাপতি আবদুস সামাদ, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নূরুর রহমান সেলিম, জাসদ নেত্রী শিরিন আক্তার, পেশাজীবী নারী সমাজের সাধারণ সম্পাদক আফরোজা হক।
আরও রয়েছেন নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, টুঙ্গীপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সোলায়মান বিশ্বাস।
প্রধানমন্ত্রী ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং ও জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের সঙ্গে এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে মিলিত হবেন।
প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটি সোমবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার কথা রয়েছে।
বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত একরামুল কাদের, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন। এরপর তিনি পার্ক এভিনিউর গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে অবস্থান করবেন।
২৩ সেপ্টেম্বর কমনওয়েলথ মহাসচিব কমলেশ শর্মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর হোটেল স্যুটে সাক্ষাৎ করবেন।
এরপর সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী ওয়ালড্রফ এস্টোরিয়া হোটেলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও তার স্ত্রী মিশেল ওবামার এক সংর্বধনায় যোগ দেবেন।
প্রধানমন্ত্রী ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের সংবর্ধনা সভায় যোগ দিয়ে সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।
এছাড়া প্রধানমন্ত্রী এই সফরে ধারাবাহিকভাবে বিশ্বের বিভিন্ন রাজনৈতিক প্রতিনিধি ও জাতিসংঘের বিভিন্ন বিশেষায়িত প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠকে মিলিত হবেন।
প্রধানমন্ত্রী ২৯ সেপ্টেম্বর সকালে দেশের উদ্দেশ্যে নিউইর্য়ক ত্যাগ করবেন। এসময় তিনি দুবাই হয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে রাজধানীতে এসে পৌঁছাবেন বলে জানা গেছে।