অর্থ ও বাণিজ্য জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর

বাংলাদেশে বিদ্যুৎ দিতে প্রস্তুত ভারত

Power-L20130920230622 ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা, ২১ আগস্ট:  বাংলাদেশে বিদ্যুৎ দিতে তৈরি ভারত। বিদ্যুৎ পরিবহনে পশ্চিমবঙ্গের বহরমপুর থেকে বাংলাদেশের ভেড়ামারা পর্যন্ত ৭১ কিলোমিটার লাইনের কাজ এরই মধ্যে শেষ। অক্টোবরের গোড়ার দিকে চালু হয়ে যাবে এই লাইন। যা দিয়ে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাবে বাংলাদেশ। খবর, বিবিসির। পত্রিকাটির কলকাতা প্রতিনিধি অমিতাভ ভট্টশালীর লেখা ওই খবরে দেশটির (ভারত) পাওয়াগ্রিড কর্পোরেশনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, পশ্চিমবঙ্গের বহরমপুর থেকে বাংলাদেশের ভেড়ামারা পর্যন্ত হাইটেনশন বিদ্যুতের লাইনটি পরীক্ষাও করা হয়ে গেছে। অগাস্ট থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ পাঠানোর কথা থাকলেও জমির সমস্যায় কিছুটা দেরি হয়েছে। লাইনটি তৈরির কাজে প্রথম থেকেই জমি একটা প্রধান সমস্যা ছিল। বিদ্যুতের সাবস্টেশন তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় জমি পাওয়া যাচ্ছিল না।   একজন কৃষক, যাঁর জমির ওপর দিয়ে বিদ্যুতের লাইন যাবে, তিনি বিপুল পরিমান ক্ষতিপূরণ চেয়ে বসায় কেন্দ্রীয় সরকারকে শেষ পর্যন্ত বিদ্যুৎ আইনের একটি ধারা প্রয়োগ করতে হয়েছে। ওই ধারায় বলা আছে, বিদ্যুৎ পরিবহনের লাইন তৈরির জন্য যেকোনো ব্যক্তিরই জমি নিয়ে নেওয়া যেতে পারে।
পশ্চিমবঙ্গের বিদ্যুৎ সচিব মলয় দে বলেন, ‘এরকম সমস্যা কোনও কোনও ক্ষেত্রে বিদ্যুতের টাওয়ার বসানোর সময় হয়ে থাকে, তখন ওই বিশেষ ধারা প্রয়োগ করে জমির দখল নিতে হয়।’

বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী পাওয়ারগ্রীড কর্পোরেশন ২৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ খুব কম দামে বাংলাদেশকে দেবে। ওই দামেই কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ সংস্থাগুলি বিভিন্ন রাজ্যকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে থাকে। বাকি ২৫০ মেগাওয়াট বাংলাদেশকে কিনতে হবে বাণিজ্যিক মূল্যে। এই মোট ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশকে সরবরাহ করবে ভারত।

অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশে এই বিদ্যুৎ সরবরাহ হবে বলে আশা ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের। বিদেশ সচিব সুজাতা সিংও শুক্রবার দিল্লিতে জানিয়েছেন, ওই বিদ্যুৎ পরিবহন লাইনটি দুই দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক।