জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কানাডায় দুর্নীতির অভিযোগ

abul-0220130918215346  ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর: পদ্মা সেতুর পরামর্শক নিয়োগে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের ঘটনায় সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে কানাডার পুলিশ। বুধবার কানাডার একটি দৈনিকে এসংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, আবুল হাসান ছাড়াও পুলিশের অভিযোগপত্রে কানাডার নির্মাণ প্রতিষ্ঠান এসএনসি-লাভালিনের সাবেক কর্মকর্তা কেভিন ওয়ালেস (৬২), মোহাম্মদ ইসমাইল (৫০), কানাডার নাগরিক জুলফিকার আলী ভূঁইয়ার নাম রয়েছে। চলমান অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। তবে আদালত তাদের অভিযুক্ত করেননি। একটি বিবৃতিতে কানাডার রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ (আরসিএমপি) জানিয়েছে, পদ্মা বহুমুখী সেতুর নির্মাণ কাজে পরামর্শক নিয়োগে উৎকোচ দেওয়ার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। কানাডার ওন্টারিওর বাসিন্দা ওয়ালেস এ মুহূর্তে শর্তসাপেক্ষে জামিনে রয়েছেন। ওয়ালেস দাবি করেছেন, তিনি এর সঙ্গে জড়িত নন এবং এসএনসি-লাভালিনের অন্য কর্মকর্তাদের দুর্নীতির ব্যাপারে তিনি অবগত ছিলেন না। মোহাম্মদ ইসমাইল ও রমেশ শাহর বিরুদ্ধে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। বাংলাদেশে সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর অর্থ উপদেষ্টা মসিউর রহমান, সেতু সচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া ছাড়াও কয়েকজনের বিরুদ্ধে পদ্মা সেতুর কাজ পাইয়ে দিতে ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ রয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর তদন্ত করছে। পদ্মা সেতুতে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে ১২০ কোটি মার্কিন ডলারের ঋণ বাতিল করে বিশ্বব্যাংক। এরপর একে একে পদ্মা সেতুতে অর্থায়নকারী অন্যান্য দাতাসংস্থা এডিবি, আইডিবি ও জাইকাও সরে যায়। বহুল প্রত্যাশিত এই সেতু নির্মাণে মোট খরচ ধরা হয় ২৯০ কোটি মার্কিন ডলার।