জাতীয় ঢাকা ধর্ম প্রধান খবর

হরতালে হজযাত্রীদের দুর্ভোগ

year-potar-220130917154215আফিফা জামান, হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা: ঘড়ির কাটায় তখন রাত দেড়টা। বুধবার ভোর ৬টা থেকে যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাসিঁর আদেশের প্রতিবাদে দেশব্যাপী জামায়াতের ৪৮ ঘন্টা হরতাল। হরতালের ফাঁদে পা না দিতেই রাতেই শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরে চলে এসেছেন সৌদি আরবগামী হজযাত্রীরা। বুধবার সকাল সাড়ে নয়টায় সৌদি এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে হজ করতে যাবেন ঢাকার শ্যামপুরের বাসিন্দা ৬২ বছরের প্রবীণ আইয়ুব আলী। তিনি হটনিউজকে বলেন, ভেবেছিলাম রাতে বিশ্রাম নেবো। ফজরের নামাজ পড়ে এয়ারপোর্টের উদ্দেশে রওনা দেবো। কিন্তু হরতালের কারণে মঙ্গলবার রাত ১০টাতেই চলে এসেছি। এখানে সারারাত জেগে থাকতে হবে। আইয়ুব আলীর সঙ্গে এ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তার দুই ছেলে-মেয়ে ও স্ত্রীকেও। হজ যাত্রী এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা অনেকেই পত্রিকা বিছিয়ে শুয়ে যাচ্ছেন টার্মিনালে। আবার ‍অনেকে ট্রলির ওপড়েই হেলান দিয়ে ঝিমাচ্ছেন। মুন্সিগঞ্জ থেকে রাত ১১ টায় এয়ারপোর্টে এসেছেন ৫৬ বছরের আব্দুল কাদের এবং স্ত্রী গুলজার বেগম। তিনিও সৌদি এয়ারলাইন্সের যাত্রী। আব্দুল কাদের বলেন, ভোর রাতে রওনা দিলেই সকাল ৭টার মধ্যে এয়ারপোর্টে পৌঁছে যেতাম। কিন্তু হরতালের কারণে এতো আগে আসতে হলো। আব্দুল কাদেরের ছেলে মহসীন বলেন, কাদের মোল্লার ফাসিঁর আদেশ দিয়েছে আদালত। এ রায় পছন্দ না হলে এটা জামায়াতের নিজের ব্যাপার, তারা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে গিয়ে হরতাল করুক, আমরা সাধারণ মানুষ কেন দুর্ভোগের শিকার হবো। রংপুর থেকেও ১৬ ঘন্টা আগে এয়ারপোর্টে এসেছেন মো. দেলোয়ার হোসেন। সঙ্গে তিন ছেলে মেয়ে এবং দুই নাতি। বলেন, হরতাল ঘোষনা দিয়েছে শুনেই রংপুর থেকে রওনা হয়েছি। কারণ অনেক সময় হরতালের কারণে আগে থেকেই গাড়ি বন্ধ করে দেয়। জীবনে প্রথমবারের মতো ওমান যাচ্ছেন আরিফুল ইসলাম। বাবা-মা, বড় ভাই বোনসহ পুরো পরিবার রাত কাঁটাচ্ছেন এয়ারপোর্টে। বুধবার দুপুর দেড়টায় ফ্লাইট, কিন্তু হরতালের কারণে রাত ১২ টা থেকে‌ই এয়ারপোর্টে পুরো পরিবার। রংপুরের মাধব যাবেন কাতার, বুধবার ১২ টায় তার ফ্লাইট। কিন্তু হরতালের কারণে মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকেই এয়ারপোর্টে অবস্থান নিয়েছেন তিনি এবং তার পরিবার।রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এয়ারপোর্টে হজ যাত্রী এবং বিভিন্ন ফ্লাইটে বিদেশে যাওয়া যাত্রীদের ভিড় বাড়তে থাকে।