অপরাধ ঢাকা প্রযুক্তি

সাইবার ট্রাইব্যুনাল আমলে নিয়েছে অভিযোগ

0e5edd94bda4a48352a73b84541239f5_XL আদালত প্রতিবেদক: মানবাধিকার সংগঠন অধিকারের সম্পাদক আদিলুর রহমান খান শুভ্র ও পরিচালক এস এম নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে পুলিশের দাখিল করা অভিযোগ আমলে নিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে মামলার পলাতক আসামি নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। এছাড়া আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর গ্রেফতারি পরোয়ানা সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশও দেন বিচারক। গতকাল ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ কে এম শামসুল আলম অভিযোগ আমলে নিয়ে এ আদেশ দেন। গত ১০ আগস্ট আদিলুরকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত ৪ সেপ্টেম্বর তথ্য ও প্রযুক্তি আইনে আদিলুর ও অধিকার এর পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করেন। পুলিশের দাখিল করা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, গত ৫ মে হেফাজত ইসলামের সমাবেশে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে কোনও ব্যক্তি নিহত কিংবা নিখোঁজের ঘটনা ঘটেনি। বরং হেফাজত ইসলামের কর্মীরা পুলিশসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। হেফাজত কর্মীদের আক্রমণে এস আই শাহজাহান নামের এক পুলিশ সদস্য নিহত হন। সারাদিনের সংঘর্ষে সর্বমোট ১১ জন নিহত হন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, অধিকার নামের সংগঠনটি হেফাজত ইসলামের সমাবেশে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে নিহতের সংখ্যা নিয়ে সম্পূর্ণ কাল্পনিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেই কাল্পনিক প্রতিবেদন অধিকারের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে আসামিরা সরকারের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র করেছেন। আসামিরা বানোয়াট প্রতিবেদন প্রকাশ করে এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি করে, যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। গত ৫ মে হেফাজত ইসলামের সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করতে রাতে এক অভিযান পরিচালনা করে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, সমাবেশে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কোনও অস্ত্র কিংবা গুলি করেনি।ওই দিন কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনায় মারা যান ১১ জন। এর অধিক একজন ব্যক্তিও নিহত হননি। সরকারের এ ঘোষনার পর গত ১০ জন এরপর মানবাধিকার সংস্থা অধিকার একটি তথ্যানুসন্ধ্যান প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেখানে দাবি করা হয়, ৫ ও ৬ মে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে অভিযানে ৬১ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ প্রতিবেদন প্রকাশের পর গত ১০ জুলাই তথ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সেই তথ্যানুসন্ধান প্রতিবেদন চেয়ে অধিকারের কাছে চিঠি পাঠানো হয়। কিন্তু অধিকার তথ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে সেই প্রতিবেদন দাখিল করেনি।