অপরাধ ঢাকা

দেবরের রামদা‘র আঘাতে আহত ভাবী‘র মৃত্যু

imagesকাঞ্চন কুমার,কুষ্টিয়া:  কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের দৌলতখালী মাদ্রাসা পাড়ায় জমিজমা নিয়ে ভাইয়ে ভাইয়ে বিরোধের জের ধরে সৃষ্ট সংঘর্ষে দেবরের রামদা‘র কোপে আহত ভাবী কোহিনুর খাতুন (৩৪) তিনদিন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর মঙ্গলবার সকালে মারা গেছে।

দৌলতপুর থানার ওসি রবিউল ইসলাম জানান, গত শনিবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে দৌলতখালী মাদ্রাসা পাড়ার মোশারফ হোসেনের ৪ ছেলে মিঠু ,সোহেল এবং টিপু, বিপ্লব দু-গ্র“পে বিভক্ত হয়ে তাদের স্থানীয় বাজারের জমি নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়ার এক পর্যায়ে মিঠু ও সোহেল কে টিপু ও বিপ্লব রামদা‘ দিয়ে উপুর্যপুরি আঘাত করতে থাকে। মাথায় আঘাত পেয়ে সোহেল মাটিতে লুটিয়ে হাসপাতালে নেবার পথে সে মারা যায়। এসময় বড়ভাই মিঠুর স্ত্রী দৌলতপুর এলজিইডির কর্মচারী কোহিনুর এগিয়ে আসলে তাকেও রামদ‘া দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় আহত করে দেবর টিপু ও বিপ্লব। কোহিনুর কে আশংকাজনক অবস্থায় প্রথমে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত রাজশাহী মেকিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে তিনদিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে কোহিনুর মারা যায়।