চট্টগ্রাম জাতীয় রাজনীতি

জামায়াত -বিএনপি উন্নয়নে বিশ্বাসী নয়-রেলমন্ত্রী

WWএস এন ইউসুফ,৩১আগষ্ট: রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক এমপি বলেছেন, জামায়াত-শিবির ও বিএনপি দেশের শত্রু। যারা দেশের বিরুদ্ধে, জাতির বিরুদ্ধে, পতাকার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে, হরতাল-অবরোধের নামে মানুষ হত্যা করে-গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টি করে তারা নৈরাজ্যবাদী লুণ্ঠনকারী এরা দেশের উন্নয়নে বিশ্বাসী নয়। তারা আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়ন দেখে সহ্য করতে পারছেনা। তার সর্বদা উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করছে। তারা মানুষকে মিথ্যা কথা বলে আবারো ক্ষমতায় যাওয়ার পাঁতারা করছে দেশ ও মানুষের স্বার্থে জামায়াত-শিবির আর বিএনপির নৈরাজ্য প্রতিহত করতে জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে।

মন্ত্রী গতকাল শনিবার বিকালে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলার গরীব, দুঃস্থ ও অসহায়দের মাঝে টিন, সেলাই মেশিন, বিভিন্ন প্রকল্পের প্রায় ৩ কোটি টাকার চেক ও নগদ অনুদান প্রদানকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোতাহার হোসেনের সভাপতিত্বে ওই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যন আব্দুস সোবহান ভূঁঞা হাসান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুদ্দীন আহমেদ চৌধুরী সেলিম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম হাজারী, মহিলা ভাইস চেয়াম্যান রাশেদা আখ্তার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শাহ আলম বাঙ্গালী, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেন পাটোয়ারী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও বাতিসা ইউপি চেয়াম্যান জাহিদ হোসেন টিপু, সাধারণ সম্পাদক ও শ্রীপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহজালাল মজুমদার, আলকরা ইউপি চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসেন বাচ্চু, গুনবতী ইউপি চেয়াম্যান আনোয়ার হোসেন, মুন্সিরহাট ইউপি চেয়ারম্যান মাহফুজ আলম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-প্রচার সম্পাদক মোশারেফ হোসেন, উপজেলার ছাত্রলীগের সভাপতি মারুফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল প্রমূখ।

মন্ত্রী এলাকার উন্নয়ন প্রসঙ্গে বলেন, আমি এলাকার উন্নয়নে কোটি কোটি টাকার কাজ করি, আর আমার সাথে যারা ভোটে দাড়ায় তারা উন্নয়নের নামে মানুষকে ধোকাদেয়। বিগত সময়ে অনেকেই এমপি হয়েছে কিন্তু এলাকার উন্নয়নে কেউ কাজ করেনি। জনগণের ভোটে দুই দুইবার নির্বাচিত হয়ে এলাকার মক্তব, মাদ্রাসা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, গরীব দুঃস্থ মানুষের মাঝে নগদ টাকা ও বিভিন্ন প্রকল্পের উন্নয়ন করা কালভার্ট

নির্মাণ সহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে মডেল উপজেলা এলাকায় পরিণত করেছি। নির্বাচনের সময় কে আমাকে ভোট দিয়েছে, আর কে দেয়নি, সেটা আমার দেখার বিষয় নয়। জনপ্রতিনিধি জনগনের নেতা হিসেবে এলাকার উন্নয়নে কাজ করাই আমার দায়িত্ব।

এসময় মন্ত্রী সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয় থেকে ১শ ৫ বান টিন এর সাথে প্রতিজনকে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নগদ ৩ হাজার করে টাকা, ৮৩ জন দুঃস্থ মহিলার মাঝে একটি করে সেলাই মেশিন, ২০জন পঙ্গ লোককে হুইল চেয়ার হুইল চেয়ার প্রাপ্তদের প্রতিজনকে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নগদ ৫শ করে টাকা, প্রায় ১২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫০ হাজার করে চেক বিতরণ, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের মাঝে ৫০ হাজার করে, গরিব মেধাবী ছাত্রদের মাঝে ১০ হাজার করে নগদ অর্থ প্রদান, দুঃস্থ অসহায়দের মাঝে নগদ ১০ হাজার করে চেক বিতরণ সহ সর্বমোট প্রায় ৩কোটি টাকার অনুদান প্রদান করেন।