অপরাধ ঢাকা

বকশীগঞ্জে শিশু অপহরণ ফেঁসে যাচ্ছে চাচা আলাল

imagesবকশীগঞ্জ(জামালপুর)প্রতিনিধি:জামালপুরের বকশীগঞ্জ থকে অপহৃত হওয়া স্কুল ছাত্র মওদুদ এর অপহরণের পর উদ্ধার হওয়ায় ঘটনার ক্লু বের হতে শুরু হয়েছে। থানা পুলিশও অধির আগ্রহে এ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে মরিয়া হয়ে পড়েছে। শিশু মওদুদ অপহরণের মুল নায়ক কে, তা বের করতে পুলিশ নিবির ভাবে কাজ করছে। ওই অপহরণের পেছনে কারা কাজ করেছেন তা বের করার চেষ্ঠা চালাচ্ছেন পুলিশ। তবে মওদুদ অপহরণের ঘটনা নাটকীয় রহস্য জনক হতে পারে ।পুলিশের সাথে কথা বলে জানা যায় ,এ ঘটনার পেছনে পারিবারিক দ্বন্দ্ব কাজ করছে। মওদুদের বাবা সেনা সদস্য আরিফুলের সাথে তার মা ফাতেমা বেগমের টাকা-কড়ি নিয়ে মনোমালিণ্য চলে আসছে। এরই কারণে স্ত্রীর উপর প্রতিশোধ নিতে বাবা আরিফুল ও চাচা আলাল এরকম ঘটনা ঘটাতে পারে । পুলিশ আরও জানায় , গত রোববার শহীদ তীতুমীর আইডিয়াল একাডেমিতে যাওয়ার পর থেকে শিশু মওদুদকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। পরে বিকালে একটি মোবাইল ফোন থেকে এসএমএসের মাধ্যমে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। অপহরণের ঘটনা জানা জানি হলে ওই দিনই নারায়ণগঞ্জ থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। তাকে সেখান থকে নিয়ে আসেন মওদুদের চাচা আলাল। পুলিশের ভাষ্য, দুপুরে মওদুদকে অপহরণ করা হয় সন্ধ্যা ৬ টায় তার চাচা আলাল তাকে নারায়ণগঞ্জ থেকে নিয়ে আসে। এতো অল্প সময়ের মধ্যে কিভাবে মওদুদ সেখানে গেলো সেটাও ভাবছে তারা। আবার মওদুদের দেয়া কথায় দাড়িওয়ালা লোকটিকেও খুঁজছে পুলিশ। পুলিশের সন্দেহ ওই দাড়িওয়ালাই আরিফুলের ভাই আলাল। শেষ পর্যন্ত এ ঘটনায় আরিফুল ও চাচা আলাল ফেঁেস যেতে পারে বলে পুলিশ এর একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। আবার অন্যকোন চক্র এখানে কাজ করেছে কিনা সেটাও গভীর পর্যবেক্ষণ করছে পুলিশ।