চট্টগ্রাম প্রধান খবর সারাদেশ

শতাধিক পর্যটক সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন

লিপু,সেন্টমার্টিন দ্বীপ,কক্সবাজার, ২৮ আগস্ট : বৈরি আবহাওয়ার কারণে দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে ভ্রমণে এসে প্রায় শতাধিক পর্যটক আটকা পড়েছেন। sentmartin-L20130827235641জাহাজ চলাচলে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার কারণে টেকনাফ ফিরতে না পেরে হতাশায় ভুগছেন পর্যটকরা।

সেন্টমার্টিন দ্বীপের ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন হটনিউজকে জানান, হঠাৎ করে ৩ নং সতর্ক সংকেত ও বৈরী আবহাওয়ার কারণে বিভিন্ন সময় দ্বীপে ভ্রমণে আসা প্রায় শতাধিক পর্যটক আটকা পড়ে আছে।
এতে স্বল্প আয়ের পর্যটকদের মাঝে হতাশা ও উদ্বেগ বিরাজ করছে। বৈরি আবহাওয়া ও সাগর উত্তাল থাকায় ট্রলার চলাচল বন্ধ থাকায় স্থানীয়দেরও খাদ্যসামগ্রী ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আনা-নেওয়া বন্ধ থাকায় সেন্টমার্টিনে এক প্রকার অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
টেকনাফস্থ দমদমিয়াস্থ কেয়ারী সিন্দবাদ ঘাটে গিয়ে যায়, দেশের বিভিন্নঞ্চল থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে ভ্রমণে আসা কয়েক’শ পর্যটককে ভিড় করতে দেখা যায়। সমুদ্র উত্তাল ও ৩ নং সর্তকতা সংকেতের কারণে জাহাজ চলাচল না করায় হতাশা প্রকাশ করেন।
ঢাকা মোহাম্মদপুর থেকে স্বপরিবারে আসা নুরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ৩ দিনের জন্য ভ্রমণে এসে সাগর উত্তাল হওয়ায় জাহাজ চলাচল না করার কারণে ছেলেমেয়েরা মন খারাপ করায়, তাদের নিয়ে কক্সবাজার ভ্রমণের উদ্দেশ্যে চলে যাচ্ছি।
সেন্টমার্টিন-টেকনাফ রুটে যাতায়াতকারী বর্তমানে একমাত্র পর্যটকবাহী জাহাজ কেয়ারী সিন্দবাদের ব্যবস্থাপক মো. শাহ আলম হটনিউজকে জানান, ৩নং সর্তকতা সংকেত ও সাগর উত্তাল হওয়ার কারণে মঙ্গলবার জাহাজ যায়নি।
তাই সেন্টমার্টিনে বিভিন্ন সময়ে যাওয়া শতাধিক পর্যটক আটকা পড়ে আছে। আবহাওয়া একটু ভালো হলে আবার জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক হবে।
টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মোজাহিদ উদ্দিন হটনিউজকে বলেন, আটকা পড়া পর্যটকদের খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে এবং আবহাওয়া অধিদপ্তরের সাথে যোগাযোগ রেখে তাদের ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চলছে।
এছাড়া আবহাওয়া অনুকূলে এলে স্থানীয়রা ট্রলার নিয়ে স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারবে।