জাতীয় ঢাকা

ইরাকে বাংলাদেশের শ্রমবাজার উন্মুক্ত হচ্ছে

Iraq-0220130827123147 শানজানা জামান ,ঢাকা, ২৭ আগস্ট: ইরাকে শ্রমবাণিজ্য শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। দীর্ঘদিনের এই বন্ধুপ্রতীম দেশটির পুনর্গঠনে সহযোগীতা করতে আগ্রহী বাংলাদেশ। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সেক্ষেত্রে ইরাকই হতে পারে বাংলাদেশীদের জন্য সম্ভাবনাময় পরবতী শ্রমবাজার।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ইরাকে বাংলাদেশের শ্রমবাজার সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। চলতি বছরের শুরুতে ইরাকে শ্রমিক পাঠানোর বিষয়ে কূটনৈতিক তৎপরতা শুরু করা হয়। ইরাক, বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিতে আগ্রহী হওয়ায় দেশটির শ্রমমন্ত্রীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। এই আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে ইরাকের শ্রমমন্ত্রী আগামি রোববার বাংলাদেশে আসছেন।

তৈরি পোশাক, কৃষিজাত দ্রব্য, খাদ্য পণ্যসহ বেশ কিছু পণ্য রপ্তানির বিষয়েও কথা হবে দু’দেশের মন্ত্রী পর্যায়ে। এছাড়া ইরাক থেকে তেল আমদানির বিষয়েও আলোচনা হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। তবে শ্রমিক পাঠানোর বিষয়টিকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়।
মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, ইরাকের শ্রমবাজার বাংলাদেশীদের জন্য খুলে দেওয়া হলে এই দেশটিতে ২০ লাখের বেশি শ্রমিকের কর্মসংস্থান হবে। এতে দেশের অর্থনীতির নুতন দুয়ার খুলে যাবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো আরও জানিয়েছে, আগামি রোববার বাংলাদেশে আসছেন ইরাকের শ্রমমন্ত্রী নাসার আল রুবাই।
তিনি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীসহ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। ইরাকী মন্ত্রীর সঙ্গে ৭ সদস্যের বাণিজ্য প্রতিনিধি দলও আসছেন।

ইরাক যুদ্ধের আগে সে দেশে বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশী শ্রমিক কাজ করতেন। যুদ্ধ শুরুর আগে বেশিরভাগ শ্রমিক দেশে ফিরে আসেন। অনেক শ্রমিক ইরাকের প্রতিবেশী দেশগুলোতে আশ্রয় নেয়। তাদের অনেকেই পুনরায় ইরাকে ফিরতে আগ্রহী। ইরাকের শ্রমমন্ত্রীর আসন্ন বাংলাদেশ সফরে দেশটির শ্রমবাজার বাংলাদেশীদের জন্য খুলে যাবে বলে আশা করছেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।