ঢাকা রাজনীতি

ইলিয়াস জীবিত, দাবি বিএনপির

images (1)20130827011900নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ২৭ আগস্ট : এবার বিএনপি দাবি করেছে এম ইলিয়াস আলী জীবিত আছেন। যেকোনো সময় তিনি তার পরিবার ও দলের নেতাকর্মীদের মাঝে ফিরে আসবেন।

গতকাল বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। এর আগে ১৩ আগস্ট লন্ডনে নিখোঁজ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলীর ছোট ভাই আসকির আলী দাবি করেছিলেন, তার ভাই জীবিত ও ভারতের কারাগারে আটক আছেন।
গত শনিবার বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, আগামী ২৯ আগস্ট বেলা ১১টায় হবিগঞ্জ জেলা পরিষদ কমপ্লেক্স মিলনায়তনে কেন্দ্রের নির্দেশে জেলা বিএনপির এক জরুরি সভা আহ্বান করা হয়েছে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাস্তবায়নের দাবিতে চলমান আন্দোলনকে আরও বেগবান করার লক্ষ্যে জেলায় জেলায় কেন্দ্রীয় নেতারা সফর করছেন।
এর অংশ হিসেবে ওই সভায় বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী দলনেতা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। এ টিমের সদস্য হিসেবে গুম হওয়া বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলী, হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সুজাত। সভা পরিচালনা করবেন হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র আলহাজ জি কে গউছ।
সভায় জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সব নেতা ও সদস্য, বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন জেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক মোহাম্মদ নাহিজ। চিঠিটি হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও সম্পাদকের বরাবর পাঠানো হয়।
২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাজধানীর গুলশান এলাকা থেকে গাড়িচালকসহ গুম হন সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলী। ইলিয়াসের স্ত্রী ও সন্তানরা স্বামী ও বাবাকে ফিরে পেতে প্রধানমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছিলেন। কিন্তু তারপরও মেলেনি বিএনপির ডাকসাইটে ওই নেতার খোঁজ। তবে বিএনপি নেতাকর্মীরা মনে করেন, ব্যবসায়ী চৌধুরী আলমের মতো তাকেও গুম করা হয়েছে।
গত ১৩ আগস্ট চ্যানেল আই লন্ডনের স্ট্রেইট ডায়ালগের অনুষ্ঠানে লাইভ প্রোগ্রামে নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর ছোট ভাই আসকির আলী দাবি করেন, তার বড় ভাই ইলিয়াস আলী বেঁচে আছেন। তিনি ভারতের দমদমের কাছে কোনো কারাগারে বন্দি আছেন। এতে করে আবার আলোচনায় আসে ইলিয়াস আলী। এ ঘটনার পর ইলিয়াস আলীর সন্ধানের দাবিতে আগামী ২৯ আগস্ট হরতাল ডাকে সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল।
গতকাল রাতে আসাদুল করিম শাহীন বলেন, দলের সিনিয়র নেতাদের সমন্বয়ে ৫৬টি টিম গঠন করা হয়েছে। ওই টিমে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলীকেও রাখা হয়েছে। এখনও তার নাম দলের জাতীয় নির্বাহী কমিটির তালিকায় আছে। তার নাম মুছে ফেলা হয়নি।