জাতীয় প্রধান খবর

নাফ নদী থেকে ধরে নিয়ে যাওয়া ৯ জেলেকে ফেরত এনেছে বিজিবি

হটনিউজ ডেস্ক:

টেকনাফের নাফ নদী থেকে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) কর্তৃক ধরে নিয়ে যাওয়া ৯ জেলেকে ফেরত এনেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) । আজ বুধবার দুপুরে পতাকা বৈঠকের পর তাদের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করে মিয়ানমার।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফের ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান। ২৫ নভেম্বর দুপুরে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে মংডু ১ নং এন্ট্রি/ এক্সিট পয়েন্টে বিজিবি ও বিজিপির পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বিজিবি জানায়, ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খানের নেতৃত্বে ১০ সদস্যদের একটি প্রতিনিধি সকালে মিয়ানমারে পৌঁছে। সেখানে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের লে. কর্নেল লিন অংয়ের নেতৃত্বে সাত সদস্যের প্রতিনিধি দলের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ পতাকা বৈঠক সম্পন্ন করেন। এ বৈঠক শেষে মিয়ানমার পুলিশ কর্তৃক আটক ৯ জেলেকে ফেরত আনে বিজিবি। তারা হলেন, সাবরাং শাহপরীরদ্বীপ এলাকার মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে মো. নুরুল আলম (৪৮), সৈয়দ হোসেনের ছেলে ইসমাইল প্রকাশ হোসেন (১৯), আব্দু সালামের ছেলে মো. ইলিয়াছ ((২১), মোহাম্মদ জাকারিয়ার ছেলে মো. ইউনুছ (১৬), সৈয়দুর রহমানের ছেলে মোহাম্মদ আলম প্রকাশ কালু (১১), ছালিম উল্লাহর ছেলে সাইফুল (১৭), মৃত বশির আহমদের ছেলে ছলিম উল্লাহ (২৫), মৃত শাহ আলমের ছেলে নুর কামাল (১৩) ও মৃত রহিম উল্লাহর ছেলে মো. লালু মিয়া (২৩)।

অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান জানান, জেলেদের ধরে নিয়ে যাওয়ার পর বিজিবির জোরালো প্রচেষ্টার কারণে জেলেদের দ্রুত হস্তান্তর করতে সম্মত হয়। তাদেরকে পুলিশের সহায়তায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সমন্বয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

গত ১০ নভেম্বর নাফ নদী থেকে নৌকাসহ ৯ বাংলাদেশি জেলেকে ধরে নিয়ে যায় মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি। ঘটনার পর বিজিবির পক্ষ থেকে বাংলাদেশি জেলে ও নৌকা ফেরত চেয়ে একাধিকবার চিঠি পাঠানো হয়। সর্বশেষ আজ তারা ফেরত দিতে সম্মত হয়। এর প্রেক্ষিতে বিজিবির একটি প্রতিনিধি দল আজ সকালে মিয়ানমারে যায়।