জাতীয় প্রধান খবর সারাদেশ সিলেট

একজন নুরুল হক ও বঙ্গবন্ধুর বৃক্ষ প্রতিকৃতি

bb-bg20130826072325সিলেট প্রতিনিধি,হটনিউজনিউজ২৪বিডি.কম:  জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি এদেশের লক্ষ কোটি মানুষের ভালোবাসা রয়েছে। লেখায়, বক্তৃতায় আবার বিশেষ কিছু করে সে ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুপ্রেমীরা। তবে এবার ব্যতিক্রম কিছু করে তার প্রতি অগাধ ভালবাসায় নিদর্শন দেখাচ্ছেন সিলেটের বিয়ানীবাজারের নার্সারি ব্যবসায়ী নুরুল হক।

থাইল্যান্ড থেকে আমদানি করা ফুজিয়া গাছ দিয়ে ৪ বছর পরিচর্যার মাধ্যমে তিনি সবুজ বৃক্ষে তৈরি করেছেন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি।

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের রেসকোর্স ময়দানের ভাষণ দেওয়ার ভঙ্গি অনুসরণ করে নুরুল হক তৈরি করেছেন এ প্রতিকৃতি।

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী ক্বিনব্রিজ ও আলী আমজাদের ঘড়িঘর সংলগ্ন সুরমার তীরে চলা ২০ দিনব্যাপী বিভাগীয় বৃক্ষমেলায় এ প্রতিকৃতি নিয়ে হাজির হয়েছেন বঙ্গবন্ধুপ্রেমী নুরুল হক। মেলার ৬ ও ৭নং স্টলে দেশি-বিদেশি নানা জাতের গাছের চারার পাশাপাশি এ প্রতিকৃতি প্রদর্শিত হচ্ছে। প্রতিদিনই ক্রেতা-দর্শকদের ভিড় লেগেই আছে নুরুল হকের বিসমিল্লাহ নার্সারির স্টলটিতে।

সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে বৃক্ষমেলায় গিয়ে দেখা যায়, সবুজে তৈরি বঙ্গবন্ধুর এ প্রতিকৃতি দেখতে ভিড় করছেন সকল বয়সী বৃক্ষপ্রেমীরা।

শুধু মুখের অংশে লাগানো বঙ্গবন্ধুর প্রিন্টেড মুখাবয়ব। মুখাবয়বের চারপাশেও রয়েছে গাছের ডাল-পালা। বঙ্গবন্ধুর পাশে রাখা হয়েছে গাছ দিয়ে তৈরি নৌকা।

বৃক্ষ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি তৈরির বিষয়ে নার্সারির মালিক মো. নূরুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসা থেকেই তিনি গাছ দিয়ে তার প্রতিকৃতি তৈরির চিন্তা করেন।

তিনি বলেন, ৭ মার্চের রেসকোর্স ময়দানে দেওয়া বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ আমাকে উদ্ধুদ্ধ করেছে। তাই আমি এ ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছি।

তিনি বলেন, চার বছর ধরে পরিচর্যার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের রেসকোর্স ময়দানের ভাষণের প্রতিকৃতি অনেকটাই সৃষ্টি হয়েছে। তবে গাছটি পরিপূর্ণ অবয়বে আসতে আরো ১০ বছর লাগবে।

তার কাছে বৃক্ষ দিয়ে তৈরি বঙ্গবন্ধুর আরো ৩টি প্রতিকৃতি রয়েছে বলেও জানান নুরুল হক।

বৃক্ষ দিয়ে তৈরি বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি সম্বলিত এ বৃক্ষটি কতো দামে বিক্রি করবেন- এ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান, টাকা দিয়ে জাতির জনকের মূল্য নির্ধারণ করা যাবে না। যিনি খুশি হয়ে যতো টাকা দেবেন ততোই এর মূল্য হবে।

তিনি জানান, মেলা শুরুর দিন থেকে এ পর্যন্ত ৪ জন ক্রেতা প্রতিকৃতিটি কিনে নিতে আগ্রহ প্রকাশ করছেন। ইতোমধ্যে প্রতিকৃতিটির মূল্য দুই লাখ টাকা পর্যন্ত উঠেছে। আবার অনেকে ফোনে যোগাযোগও করছেন।

তবে এখনই প্রতিকৃতিটি বিক্রি করতে রাজি নন নুরুল হক। যারা আগ্রহ প্রকাশ করছেন, তাদের মধ্য থেকে সর্বোচ্চ দরদাতাকে মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির মাধ্যমে তিনি প্রতিকৃতিটি তুলে দেবেন।

বাংলাদেশে প্রথম বৃক্ষ দিয়ে প্রতিকৃতি নির্মাণ করেছেন দাবি করে নুরুল হক বলেন, তার নার্সারিতে জাতীয় চার নেতা, মহাত্মা গান্ধী, নেলসন ম্যান্ডেলাসহ আরো ১০-১২ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির প্রতিকৃতি তৈরির কাজ চলছে।

তিনি ২০১৫ সালে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের বৃক্ষের তৈরি প্রতিকৃতি নিয়ে একটি প্রদর্শনী করতে পারবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন।