রাজনীতি হটনিউজ স্পেশাল

নির্বাচনে গিয়ে প্রমাণ করতে চাই, এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না: মির্জা ফখরুল

হটনিউজ ডেস্ক:

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচন তামাশায় পরিণত হয়েছে বহু আগে। গতকাল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই বিএনপি নির্বাচনে গেছে। কথাটা মিথ্যা বলেননি তিনি। নির্বাচন তো প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে গেছে ২০১৪ সাল থেকেই।

আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে বিএনপির মহাসচিব এসব কথা বলেন। গত শনিবার অনুষ্ঠিত ঢাকা–৫ আসনে ‘প্রহসনের নির্বাচনের’ প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর বিএনপির উত্তর ও দক্ষিণ কমিটি এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের দেশে যে নির্বাচন কমিশন আছে, এটা একটা ঠুঁটো জগন্নাথ।’

ঢাকা–৫ আসনে উপনির্বাচনের ফলাফলের কথা উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘তারা (ইসি) বলেছে ঢাকা–৫-এ ১০ শতাংশ ভোট পড়েছে। আমরা মনে করি ৫ শতাংশ ভোটও পড়েনি।’

সরকারের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, ‘আপনারা অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে ভোটের অধিকার হরণ করেছেন। এ দেশের মানুষ যাতে ভোট দিতে না পারে, তার সব ব্যবস্থা তৈরি করেছেন।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘নির্বাচনগুলো একটা তামাশা। ২০১৮ সালে নির্বাচনের আগের রাতে তারা ভোট ডাকাতি করেছে। তার আগে ২০১৪ সালের নির্বাচনে ১৫৪ জনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত করে সরকার গঠন করেছে। এই সরকারের অধীনে মানুষের ভোটের অধিকার নেই।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘অনেকে আমাদের প্রশ্ন করেন, তাহলে আপনারা নির্বাচনে যান কেন? আমরা নির্বাচনে এই জন্য যাই, কারণ আমরা একটা উদার গণতান্ত্রিক দল।

আমরা মনে করি, নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারের পরিবর্তন হবে। আমরা নির্বাচনে গিয়ে প্রমাণ করতে চাই, এই সরকারের অধীনে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না।’

বিএনপির মহাসচিবের ভাষ্য, এই সরকারের অধীনে কোনো মানুষই নিরাপদ নয়। মা-বোনেরা নিরাপদে চলাফেরা করতে পারেন না। সারা দেশে ধর্ষণের মহোৎসব শুরু হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কোভিড বলেন, ধর্ষণ বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বলেন, জনগণের নির্বাচিত সরকার ছাড়া কিছুরই সমাধান হবে না।’

বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খানের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে কেন্দ্রীয় ও মহানগরেরা নেতারা বক্তব্য দেন।